৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬

এ যেন আরেক বাংলাদেশ

সমস্ত তথ্য ও লিংক পাঠিয়েছেন মোকাম্মেল

উপাসনালয়ের ভেতরে গিয়ে মোবাইলে পোকেমন খেলার "অপরাধে" গ্রেপ্তার করা হয়েছে এক তরুণ ব্লগারকে। শাস্তি হিসেবে পাঁচ বছরের কারাবাস হতে পারে তাঁর। আসলে স্রেফ একটি ছুতোয় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মূল কারণ হচ্ছে - তিনি নাস্তিক, ধর্মের সমালোচনা করেন। তিনি জনপ্রিয় ইউটিউবার, তাঁর চ্যানেলের সাবস্ক্রাইবার সংখ্যা ২ লাখ ৭০ হাজার।... মনে হতে পারে, এমনটি সম্ভব শুধু ইছলামকবলিত মুছলিম জাহানের কোনও দেশে। না, তা নয়। কাগজে-কলমে ধর্মনিরপেক্ষ, তবে বাস্তবে প্রবলভাবে ধর্মদুর্গত দেশ রাশিয়ায় ঘটেছে এই ঘটনা।

রাশিয়ার আরেকটি ঘটনা। পুতিনের প্রত্যক্ষ প্রশ্রয়- ও পক্ষপাতপুষ্ট রুশ অর্থোডক্স চার্চের উচ্চপদস্থ ধর্মযাজক ভ্সেভোলদ চাপলিন "মস্কোর প্রতিধ্বনি" নামের রেডিও চ্যানেলে এক সাক্ষাৎকারে স্পষ্ট উচ্চারণে বলেছিল, "কিছু মানুষকে হত্যা করা প্রয়োজন। কেন নয়?... কিছু মানুষকে হত্যা করা যায় এবং হত্যা করা প্রয়োজনও।" (সাক্ষাৎকারের ট্র্যান্সক্রিপ্ট  - গুগল-অনুবাদ, লিংকে গিয়ে "kill" লিখে পেইজ সার্চ দিয়ে পড়ুন। রুশ ভাষা জানেন যাঁরা, তাঁদের জন্য ভিডিও)...

প্রচারমাধ্যমে বিচারবহির্ভূত হত্যার স্পষ্ট আহ্বান জানালেও কেউ তার কেশাগ্রও স্পর্শ করতে পারেনি। ঠিক যেমন কাগজে-কলমে ধর্মনিরপেক্ষ, তবে বাস্তবে প্রবলভাবে ধর্মদুর্গত বাংলাদেশের ওয়াজবাজরা বিধর্মী ও অবিশ্বাসী হত্যার সরাসরি হুমকি জানালেও তারা থেকে যায় আইনের বাইরেই।


একটি প্রাসঙ্গিক পোস্ট: রাশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের মিল