৬ জুন, ২০১৬

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীয় বিবর্তন

লিখেছেন জুলিয়াস সিজার

বিবর্তনের ধারায় ১.৪ কোটি বছর পূর্ব থেকে শুরু করে প্রাইমেট বা এক ধরনের বানর প্রজাতির ক্রমশ বিবর্তনের ফলে ওরাং ওটাং, গরিলা, শিম্পাঞ্জি এবং একসময় মানুষের সৃষ্টি হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামাল এমন বিবর্তনের একটি প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

এ দেশের রাজনীতিতেও বিবর্তনবাদের স্পষ্ট প্রভাব লক্ষ্য করা যায়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান কামালের অতীত এবং বর্তমানের নানা বিবৃতির পর্যালোচনা করলে তারই প্রমাণ মেলে। এটাকে মানবমনের বিবর্তনও বলতে পারেন। কয়েকটি ঘটনা নিয়ে তাঁর ধারাবাহিক বিবৃতিগুলোতে চোখ রাখলে তা স্পষ্ট হয়ে উঠবে।

আসাদুজ্জামান কামালের (অবজেক্ট, সাসপেক্ট) বিবর্তন:

- পঞ্চগড়ে পুরোহিতকে জবাই করে হত্যার পর...
দেশে কোন জঙ্গি নেই। দুর্বৃত্তরা সরকারকে বেকায়দায় ফেলতে এসব বিচ্ছিন্ন খুনের ঘটনা ঘটাচ্ছে।
- গোপালগঞ্জকে আশ্রমের সাধুকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যার পর...
খুনি মানসিক ভারসাম্যহীন।
- বান্দরবানে ভিক্ষুকে হত্যার পর...
ভিক্ষুর স্বজনেরাই খুন করেছেন। (সকালে)
মুখ ফসকে বেরিয়ে গেছে কথাটি। সরকার তদন্ত করবে। (সন্ধ্যায়) 
তৎপরবর্তীতে...
দেশে আইএস নেই, তবে জঙ্গি থাকতে পারে।
এবং এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রীকে হত্যার পর...
এই খুনের সাথে জঙ্গিরা জড়িত।
অবশেষে অরিন্দম কহিল বিষাদে। একদিন এই সরকার আইএস, তালেবান সবার অস্তিত্বই স্বীকার করে নেবে। শুধু সময়ের অপেক্ষা।

অতঃপর তোমরা বিবর্তনের কোন প্রভাব অস্বীকার করিবে?