১৭ জুন, ২০১৬

বাহ্যজ্ঞানহীন কুরান

লিখেছেন রহমান পৃথু

দুটো হাদিস পড়া যাক।
১. মুহাম্মদ ও তাঁর স্ত্রীরা খেজুর বাগানে মলমূত্র ত্যাগ করতেন।
[হাদিস: সহি বুখারি ১:৪:১৪৮, ৮:৭৪:২৫৭; সহি মুসলিম ৫১৭]
২. স্ত্রীরা দিনে পর্দার কারণে বাগানে যেতে পারতেন না। রাত্রে যেতেন। দিনে ঘরে পাত্র রাখা থাকত। মুহাম্মদ রাতে পাত্রে প্রস্রাব করে ঘরের কোণে রেখে দিতেন।
[হাদিস: সুনান আবু দাউদ ১:০০২৪; সুনান নাসাই ১:৩২]
অর্থাৎ নবীজির স্ত্রীরা সারা দিন মলমূত্র ত্যাগ করতেন না, পেট চেপে ধরে থাকতেন, আর অপেক্ষা করতেন, কখন রাত হবে। 

কী ভয়াবহ! তথ্যগুলো হাদিসে আছে। আমার বানানো গল্প নয়।

আরও জানা যাচ্ছে, খেজুর বাগানে মলমূত্র ত্যাগ করা সুন্নত। সওয়াবের কাজ। 
অথচ এসব বিষয়ে কথা বললেই আমরা হয়ে যাই ইসলামের শত্রু।
কিন্তু ইতিহাস জানতে দোষ কোথায়?

এখন আমার প্রশ্ন হচ্ছে:

মুহাম্মদের যেহেতু স্ত্রী ছিলো ১৪ টা, আরও ছিলো কয়েক গণ্ডা রক্ষিতা, পরিচর্যাকারিণী ও যৌনদাসী, তার মানে - তাঁর যথেষ্ট অর্থনৈতিক সামর্থ্য ছিল। অথচ নিজের বাড়িতে টয়লেট ছিল না। কেন?

মুসলমানদের দাবি - কুরান নাকি মহাবৈজ্ঞানিক গ্রন্থ। মহা সায়েন্স। অথচ আল্লাহ্‌ ও মুহাম্মদের টয়লেট বানানোর জ্ঞানও ছিল না। তাহলে কুরানকে বিজ্ঞানময় গ্রন্থ কেন বলব?

* শিরোনামে ব্যবহৃত "বাহ্য" শব্দটির একটি অর্থ - মল বা বিষ্ঠা।