১১ জুন, ২০১৬

যেখানে রোজা রাখা মানেই নির্ঘাত মৃত্যু

প্রেরক: নাস্তিক বাংলাদেশ নামের ফেসবুক পেজ

আল্লাহর মূর্খতার আরেকটি উদাহরণ:

কুরানে রোজার নির্দেশ দিয়ে আল্লাহ বলেন,
...আর পানাহার কর যতক্ষণ না কাল রেখা থেকে ভোরের শুভ্র রেখা পরিষ্কার দেখা যায়। অতঃপর রোজা পূর্ণ কর রাত পর্যন্ত...
(কুরান ২:১৮৭)
ইউরোপের উত্তরাংশের অনেক শহরেই এই সময়টাতে সারাদিন (২৪ ঘন্টাই) সূর্য থাকে, অস্ত যায় না। উদাহরণ স্বরূপ, নরওয়ের লংইয়ারবিন কিংবা কানাডার এলার্ট-এর বাসিন্দারা যদি রোজা রাখতে চায়, তাহলে তাদের মৃত্যু অবধারিত! কেননা এই সময়টাতে ওখানে ২৪ ঘন্টাই সূর্য থাকে। রাত হয় না। রমজান মাসসহ আরো কয়েক মাস এভাবেই চলে যাবে রাত না হয়ে। 

এই পোস্টারটি ২০১২ সালে ধর্মকারীতে কে পাঠিয়েছিলেন, দুঃখের কথা, এখন তা আর মনে নেই...

কুরান বা হাদিসের কোথাও এই সমস্যার সমাধান নেই। ওসব এলাকার ক্ষেত্রে মুসলমানেরা যদি পার্শ্ববর্তী কোনো দেশের সময়সূচি অনুসরণ করে, সেটা হলো মানুষের তৈরি গোঁজামিল। আল্লাহর দেয়া সমাধান না। 

এ গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি সম্পর্কে কুরানে উল্লেখ নেই, কারণ ভণ্ড নবী মুহাম্মদ মেরু অঞ্চল সম্পর্কে জানতেনই না। জানলে ওহী লেখকদের কুরানে এরকম করে আয়াত লিখতে নির্দেশ দিতেন:
হে মানবজাতি, তোমরা কি মেরু অঞ্চল সম্পর্কে ভেবে দেখেছ? আমি কীভাবে সেখানে দিন রাত সুদীর্ঘ করে দিই? অতঃপর তোমরা আমার কোন মোজেজাকে অস্বীকার করবে? নিশ্চয়ই আল্লাহ সর্ব বিষয়ের উপর ক্ষমতাবান।
(সুরা "উত্তর মেরু", আয়াত ৫)