২০ মে, ২০১৬

নবী সমীপে খোলা চিঠি

লিখেছেন পুতুল হক

মাননীয় নবী,

আমার শ্রদ্ধা ও ভালোবাসা জানবেন। মুসলিম পিতামাতার ঘরে মুসলমান হয়ে জন্মে আমি বর্তমানে একজন নাস্তিক। আমি জানি, আপনার অভিশাপ এবং আপনার সাঙ্গপাঙ্গদের নাঙ্গা তলোয়ারের নিচে আমাকে আমৃত্যু বাস করতে হবে। তবুও আমি আমাকে শ্রদ্ধা জানাই, কারণ আপনি আমার চাইতে প্রায় পনেরশ বছরের সিনিয়র এবং গুরুজনকে মান্য করা আমাদের এ অঞ্চলের রীতি। তাছাড়াও আপনি একজন মানুষ এবং দোষে-গুণে মিলিয়ে একজন মানুষ। আপনার নব্যুয়তির উদ্ভব ছিল সময়ের দাবি।

হাসবানে না, শ্রদ্ধেয় নবী, আমি আপনাকে সত্যিকারে ভালোবাসি; টিটকারি মারছি না। আপনার জীবনী পড়ে এবং আপনার চালু করা কোরআন পড়ে আমার কেবলই মনে হত, আপনার জীবনে ভালোবাসা, স্নেহ, মায়া, মমতার বড়ই অভাব ছিলো। আরবের নীরস মরুভূমির চাইতেও শুষ্ক ছিলো আপনার জীবন। দুঃখের তরবারিতে হৃদয় আপনার ফালাফালা। আমি আপনাকে ভালোবাসি, নবী, কোনো খাদ নেই তাতে। শুধু আমি নই, আমার মত অসংখ নাস্তিক আপনাকে ভালোবাসে, কারণ আমাদের কাছে ভালোবাসা সব চাইতে বড় ধর্ম। আপনার উম্মতদের চাপাতির কোপে আমাদের ধড় আলাদা হয়, তাজা রক্তের স্রোতে পথঘাট ভাসে, তবু মানুষের জন্য আমাদের ভালোবাসা ফুরায় না। 

পদার্থবিজ্ঞান সম্পর্কে আমার খুব সামান্য ধারণা আছে, আপনার, বোধহয়, তাও নেই। এই বিজ্ঞান বলে, পৃথিবীর প্রতিটি বস্তুর একে অপরের ওপর একটি টান কাজ করে। আমার কী মনে হয়, জানেন? এর নাম ভালোবাসা। না না, সিনেমার নাম নয় - বাস্তবে এর নাম ভালোবাসা। এই ভালোবাসা আপনার জন্যেও আছে।

ভূমিকাতেই পত্র আমার দীর্ঘ হয়ে গেল। আসলে আমার বক্তব্য খুব সরল-সোজা এবং সংক্ষিপ্ত। আপনার উম্মতদের ওপর আপনার কোনো নিয়ন্ত্রণ নেই। তারা আপনাকে ইচ্ছেমত ভাঙে, গড়ে। সৌদি প্রেসের নাম - লাওহে মাহফুজ। ইসলাম নামের যে-চারা গাছটি আপনি রোপণ করেছিলেন, তা এখন ফলবান বিশাল মহীরুহ। এর ফল ভক্ষণ করে কোটি কোটি মানুষ এখন বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত। আপনার কিছু করার নেই এখন। একজন মৃত মানুষের কিছু করার ক্ষমতা থাকে না। এই বিষাক্রান্তরা যতই আমাদের আঘাত করুক, আমাদের রক্ত পান করুক, আমরা তাদের রোগমুক্তির জন্য চেষ্টা করে যাবো। আমরা তাদের বোঝাবো, মানুষের জন্য মানুষের ভালোবাসাকে যে-ধর্ম খাটো করে, তা কখনো মানুষের ধর্ম হতে পারে না।