২৮ মে, ২০১৬

একটি খোলা-তরবারি কবিতা

নির্মলেন্দু গুণের "একটি খোলা কবিতা" অবলম্বনে লিখেছেন নাস্তিকথন

আসুন আমরা ইসলাম সম্পর্কে বৃথা বাক্য
ব্যয় না করে একটি মুশরিকের কল্লা
নামিয়ে দিয়ে বলি: 'এই হচ্ছে প্রকৃত ইসলাম।
জিহাদকে বন্ধ রেখে, কাফিরকে উপদেশ দিয়ে
অযথা সময় নষ্ট ক'রে লাভ নেই, আসুন
আমরা প্রগতির দরোজাটা বন্ধ করে দিই।'

গণতন্ত্রের পথ খোলা রেখে
সম্ভব নয় প্রকৃত খিলাফতের স্বপ্ন দেখানো।
নিরপেক্ষ কলবে ঈমান থাকবার কথা নয়,
সে বেরিয়ে যাবেই; ওটাই ঈমানের ধর্ম ।
মডারেটের ভাবনা ভিন্ন হলেও শরিয়া আইন একটাই।

ঈমানদার নবী তাই বিধর্মী উপড়ে ফেলেছিল সময়মত,
নইলে কাফিরবেষ্টিত হেজাজে ইসলাম কি ফলতো?
যুক্তির আক্রমণ থেকে অন্ধ ধর্মকে
রক্ষা করতে হয় যুক্তিদাতার কল্লা কেটে।
বিধর্মীর বোনকে করতে হবে ধর্ষণ, অথবা দাসী,
প্রচণ্ড ত্রাসসৃষ্টি ছাড়া
পৃথিবীতে কবে কোথায় ইসলাম প্রতিষ্ঠা পেয়েছে?
কাফির কতল ছাড়া ইসলাম বৃক্ষের
পুষ্টিসাধনের সংকল্প হচ্ছে গায়েবি কল্পনা।

সুন্নত লাভ কি সম্ভব জেহাদ ব্যতিরেকে?
কিংবা কাফির জেনানা ধর্ষণ ছাড়া?
এলেমহীন মডারেট বেহেশত চান
সংবিধানে রাষ্ট্রধর্ম স্থাপন করে,
বিজ্ঞ আলেম পরামর্শ দেন খিলাফতের।
তাতে কিছু রক্তপাত হয় বটে,
হয়তো কেটে ফেলতে হয় লাখো বিধর্মীর কল্লা
কিন্তু দোযখ থেকে মুক্তির পথে ওটা এমন কিছু নয়।
আল্লার বিধানে দরাদরি নেই। এটা ফরজ।

রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম দিয়েই হুরলাভের ভ্রান্ত প্রত্যাশায়
সময় নষ্ট না করে আসুন আমরা জিহাদের পথেই চলি।