১১ এপ্রিল, ২০১৬

এসো, কোরান তিলাওয়াত করি - ০৫

লিখেছেন ফাতেমা দেবী (সাঃ)

১১.
আল্লা তোমাদের জন্য মৃত্তিকাকে বিছানা এবং আকাশকে করেছেন ছাদ এবং বর্ষণ করেন আকাশ হতে পানি, অতঃপর তা থেকে তোমাদের জন্য ফলমূল রিজিকস্বরূপ সৃষ্টি করেছেন, সুতরাং জেনে কাউকে আল্লার সাথে শরিক করো না। - সুরা বাকারা, আয়াত ২২ (২:২২)

আল্লার কথা অনুযায়ী, মাটি হচ্ছে বিছানা। আর আকাশ হচ্ছে ছাদ। আমরা সবাই বিছানায় বাস করি। আর আল্লা বাস করেন ছাদে। কেন তিনি বিছানায় বাস না করে ছাদে বাস করেন? তিনি কি চিলেকোঠার আল্লা?

১২.
আল্লা যখন ফেরেশতাদেরকে বললেন, পৃথিবীতে প্রতিনিধি (মানুষ) সৃষ্টি করবো; তারা বললো, আপনি সেখান এমন কাউকে সৃষ্টি করতে চান, যে অশান্তি ও রক্তপাত ঘটাবে। আমরাই তো আপনার প্রশংসার তছবীহ ও পবিত্রতা ঘোষণা করছি। আল্লা বললেন, আমি যা জানি তোমারা তা জানো না। - সুরা বাকারা আয়াত ৩০ (২:৩০)

প্রথমত - ফেরেশতারা মানুষ সৃষ্টির আগেই আল্লাকে বলেছিল, মানুষ রক্তপাত ও অশান্তি ঘটাবে। পৃথিবীতে বাস্তবে হচ্ছেও তাই। অথচ আল্লা বলেছিলেন, আল্লা যা জানেন, ফেরেশতারা তা জানে না। অথচ বাস্তবে প্রমাণিত হলো, ফেরেশতারা আল্লার চেয়ে বেশি জানে।

দ্বিতীয়ত - ফেরেশতারা আল্লাকে বলেছিল, আমরাই তো আপনার প্রশংসার তছবীহ ও পবিত্রতা ঘোষণা করছি।... আগেকার দিনে রাজা-বাদশারা যেমন তাদের দরবারে লোক নিয়োগ করতো তাদের গুণগান করার জন্য, তেমনি আল্লাও ফেরেশতাদেরকে নিয়োগ করেছেন তার গুণগান করার জন্য! আল্লা এতোটাই নিচুজাতের ফাউল?

তৃতীয়ত - ফেরেশতারা আল্লার পবিত্রতা ও তছবীহ ঘোষণা না করলে কি আল্লা অপবিত্র ও বে-তছবীহ হয়ে যাবেন? কেন ফেরেশতা নিয়োগ দিয়ে তাদের দ্বারা নিজের পবিত্রতা ঘোষণা দেওয়ানো? কেন এই সস্তা লোক হাসানোর আয়োজন?

১৩.
ওরা বধির, বোবা, অন্ধ সুতরাং ফিরবে না। - সুরা বাকারা, আয়াত ১৮ (২:১৮)

আল্লা বলেছেন, তিনি 'হও' বললেই যে কোনো কিছু হয়ে যায় সাথে সাথে। তাহলে তিনি 'হও' বলে বলে বধিরকে শ্রবণশক্তি, বোবাকে বাকশক্তি ও অন্ধকে দৃষ্টিশক্তি দিচ্ছেন না কেন?