২ মার্চ, ২০১৬

একটি বিশেষ আমন্ত্রণ

লিখেছেন মালা আলম

একটি বিশেষ আমন্ত্রণ: সুবর্ণ সু্যোগ (সীমিত সময়ের জন্য) 

আপনি কি…. 

১. লালায়িত? হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীষ্টান বা অন্য কোনো অমুসলিম ব্যক্তির (আরবীতে এক কথায় কাফির) সম্পত্তি (জায়গা/জমি, বাড়ি/গাড়ি বা যেকোন স্থাবর/অস্থাবর সম্পত্তি) আপনার চাই? কিন্তু তার জন্য পয়সা খরচ করতে চান না? 

২. ধ্বংসকামী? ভাঙতে পছন্দ করেন? জানতে চান গাড়ি বাড়ি ভাঙতে, বা আগুন লাগাতে কেমন লাগে? 

৩. বিকৃতকামী? ধর্ষণ বা গণধর্ষন করতে চান? অথবা আরও কিছু বেশি? যেমন দুই বোনকে ধর্ষণ, মা এবং মেয়েকে ধর্ষণ, স্বামীর সামনে স্ত্রীকে, বাবার সামনে মেয়েকে, ভাইয়ের সামনে বোনকে ধর্ষণ...অথবা ধর্ষণের পর হত্যা? 

৪. পাশবিক? মানুষ মেরে দেখতে চান কেমন লাগে? মানুষ জবাই করতে চান? পিটিয়ে মারতে চান? ছেলের সামনে বাবাকে, বাবার সামনে শিশুকে? জীবন্ত মানুষের পশ্চাৎদেশ দিয়ে বাঁশ ঢুকিয়ে দেখতে চান? আছড়ে মেরে দেখতে চান এক মাসের বাচ্চা কত দ্রুত মরে? পুরো পরিবারকে জীবন্ত অগ্নিদগ্ধ করতে চান? 

কিন্তু আইনের ভয়ে কিছু করতে পারেন না???

তাহলে আজই আমাদের সাথে যোগ দিন! আমরা ওপরে উল্লেখিত সব কিছুই করতে পারি এবং আমরা সম্পূর্ণ নিরাপদ। আমরা আইনের ঊর্ধ্বে। আমাদের বিরুদ্ধে কেউ কিছু করে না। কারণ আমরা উগ্রপন্থী মুসলমান। 

ভাবছেন কীভাবে? একেবারে সহজ। আমরা বিশ্বের যে কোনো দেশের ইসলাম, মুসলিম, আল্লাহ, নবী বা কোরান বিষয়ক সমালোচনা, অপমান, বিদ্রূপ, কৌতুক ইত্যাদির খবর অথবা কাল্পনিক খবরকে ব্যবহার করি। অতিরিক্ত সাবধানতা স্বরূপ আমরা পর্যাপ্ত পরিমাণ কোরান এবং হাদিসের ব্যাখ্যা ব্যবহার করে আমাদের কার্যক্রমের যুক্তি উত্থাপন করি, যাতে করে যে কোনো সন্দিহান মুসলমানও আমাদের কাজকে সহজে অসমর্থন করতে পারে না। যার ফলে ৯৯% মুসলমান আমাদের বিপক্ষে কিছু বলে বা করে না। বাকী ০.৯৯% হালকা সমালোচনা করে যা আপনি সহজেই অগ্রাহ্য করতে পারেন। বাকী ০.০১% হয়তো একটু সক্রিয় প্রতিবাদ করার চেষ্টা করে, কিন্তু আমরা তাদেরকে পাল্টা মুরতাদ ঘোষনা করি। আর কাফিরদের কথা শোনা তো সম্পূর্ণ অপ্রয়োজনীয়! (কোরবানীর সময় গরুর মতামত শোনার প্রয়োজন আছে কি?) 

ভাবছেন, কীভাবে যোগ দেবেন? একদম সহজ। আমাদের একমাত্র শর্ত - আপনাকে মুসলমান হতে হবে। ইসলামের সবকিছু পালন করতে হবে এমন কথা নেই, শুধু নামই যথেষ্ট। 

ভাবছেন কোথায় যোগ দেবেন? আমরা তো আপনার পাশেই আছি! আমাদের সম্মন্ধে যে কোনো নিকটবর্তী মসজিদে খবর নিন। ইদানীং প্রতি শুক্রবার বাদ জুম্মা আমরা মিছিল মিটিংয়ের আয়োজন করছি। কোনো প্রকার দ্বিধা ছাড়াই যোগ দিন। আমরা আপনার মনের বাসনা পূরণে সর্বাত্মক সহায়তা করবো। 

এ সুযোগ সীমিত সময়ের জন্য!! 

দূর্ভাগ্যজনক হলেও সত্য, এ সুযোগ সীমিত সময়ের জন্য!! দেশের কাফির সংখ্যা দ্রুত হ্রাস পাচ্ছে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে কাফির সংখ্যা শুন্যের কোঠায় নেমে আসতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন আমাদের পরিসংখ্যা দপ্তর। কাজেই আপনার মনের বাসনা পূরণ করার এখনই সুবর্ণ সু্যোগ! আসুন, আমরা আপনার অপেক্ষায় আছি!

(১.১০.১২ তারিখে প্রকাশিত)