৩ জানু, ২০১৬

পুতুলের হক কথা - ০৮

লিখেছেন পুতুল হক

২২.
বাংলাদেশে হিন্দু, খ্রিষ্টান বা পাহাড়িরা কতটা খারাপ অবস্থায় আছে? তাদেরকে আরো খারাপ অবস্থায় ফেলার মত কিছু অবশিষ্ট আছে বলে মনে হয় না। এবার তাহলে আসুক শরিয়া। আধুনিক আপু-ভাইয়াদের শরীরে ইইইকটু ইসলামী শান্তির বাতাস লাগুক। নায়িকা, গায়িকা, মডেল, কর্পোরেট, প্রোডাকশন হাউজ, সেলস গার্ল, স্বাধীন ব্যবসা, একলা চলা, শপিং মল, টিভি চ্যানেল, হকার্স মার্কেট, দিগন্ত বাইসাইকেল, কোচিং সেন্টার, সেলফি, পান্তাভাত, ফারুকি, পারিবারিক আদালত, নারকেল তেল, কফি শপ, পিকনিক, বিজ্ঞাপন, মেরিস্টেপস, গায়ে হলুদ, এসএমসি, পোশাক শিল্প, উচ্চশিক্ষা, সব সব সব জায়গাতে লাগুক হাওয়া ইসলামের। ইসলাম কাহাকে বলে, উহা কত প্রকার ও কী কী, তা উদাহরণসহ সব মডারেট মুসলমানকে দেখিয়ে দেয়ার সময় এসেছে।

২৩.
মুসলমানদের নতুন কলেমা: "আল্লাহ সর্বশ্রেষ্ঠ। মোহাম্মদ (সাঃ) আল্লাহর প্রেরিত রাসুল। নিশ্চই মুসলমানদের তেল-গ্যাস দখল করার জন্য আমেরিকা-ইহুদিরা ইসলামী জঙ্গি তৈরি করে।"

২৪.
আমাদেরকে কেউ আর কম-মুসলমান বলতে পারবে না। প্রতি জুম্মাবারে আমরাও পারি বোমা ফাটাতে, লাশ ফেলতে। নিশ্চয়ই আল্লাহর রহমত এই দেশের ওপর ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমরা এমন একটি মুসলিম দেশ বানাবো যে, মহানবী বেহেস্তে বসে হায়-হায় করবে - কেন বঙ্গীয় ব-দ্বীপে হিজরত করলেন না। আমরা এতদিন সত্যিকারভাবে কম-মুসলমান ছিলাম। জুম্মাবার যে সাপ্তাহিক কুচকাওয়াজের দিন, সাপ্তাহিক জিহাদি মহড়ার দিন, আমরা ভুলেই গিয়েছিলাম। এতোদিন মুমিন সব নাম-কা-ওয়াস্তে দুই রাকাত নামাজ পড়ে ঘরে এসে ইলিয়াস কাঞ্চনের সিনেমা দেখতো। এখন আর সেই দিন নেই। প্রতিটি জুম্মার দিন হবে ইসলামী শৌর্যে রক্তিম, কাফেরদের লাশ নিয়ে হবে উৎসব। এনশাল্লাহ।

২৫.
জঙ্গিবাদকে নাকি সরকার কঠোর হাতে দমন করবে? আমার বাসায় একটি জিহাদি বই আছে। সরকার জানতে পারলে আমি বিপদে পড়বো কি না, ভাবছি। বইটির নাম কোরআন শরিফ। আগে যখন বুঝিনি কী লেখা আছে তাতে, তখন সুর করে পড়েছি। বুঝতে পারার পর আর পড়ছি না।