১৬ অক্টোবর, ২০১৫

বিন্দু বিন্দু হিন্দু আসুরিকতা - ০১

১. গরুর মাংস খাবার 'অপরাধে' হিন্দু জনতার আক্রমণে মুছলিম নিহত হবার ঘটনা প্রসঙ্গে বিশ্ব হিন্দু পরিষদের নেত্রী বলেছে, যারা গরুর মাংস খায়, তাদের এমন শাস্তিই হওয়া উচিত।

২. লাঞ্চের সরঞ্জাম স্পর্শ করেছে বলে ১০ বছর বয়সের নিম্নবর্ণের দলিত ছাত্রকে প্রহার করেছে শিক্ষক।

৩. কতো বিচিত্র বাবা যে আছে হিন্দুধর্মে! এমন একজন, যে কিনা চুমুর মাধ্যমে চিকিৎসা করে 'চুমু বাবা' নামে পরিচিত হয়েছিল, গ্রেপ্তার হয়ে কারাগারে গেছে চুমু খাবার অপরাধেই।

৪. হিন্দুদের মন্দির চত্বরে গোমাংস ছুঁড়ে দিয়ে সাম্প্রদায়িক বিভেদ উসকে দিতে চেয়েছিল হিন্দু মৌলবাদীরা।

৫. নবরাত্রিতে নিষিদ্ধ মুছলিমেরা। হিন্দু দর্শনার্থীদের গায়ে ঝরবে পবিত্র গোমূত্র

৬. নিম্নবর্ণের হিন্দু হয়ে মন্দিরে ঢুকতে চাওয়ার দুঃসাহস করেছিলেন বলে এক দলিত বৃদ্ধের গায়ে কেরোসিন ঢেলে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে এক দলিত বৃদ্ধকে।

৭. পাঁচ বছরের এক শিশুকে বলি দিয়ে উৎসর্গ করা হয়েছে রক্তপিপাসু দেবী কালীর উদ্দেশে।

৮. মেয়েকে বিষ খাইয়ে মারলো বাবা-মা। মেয়েটির অপরাধ - তার প্রেমিক ছিলো নিম্নবর্ণের দলিত।

৯. গোমূত্র দিয়ে ক্যান্সারের চিকিৎসা করা সম্ভব এবং গোবরের ক্ষমতা আছে পারমাণবিক বোমা নিষ্ক্রিয় করে দেয়ার - দাবি করেছে হিন্দু মৌলবাদী সংগঠন।

১০. পালিয়ে উচ্চবর্ণের মেয়েকে বিয়ে করায় এক ছেলের দুই বোনকে ভোগ করতে হবে অভিনব শাস্তি - তাদেরকে ধর্ষণ করা হবে।

১১. ধুতি-পরা পণ্ডিতরা যা জানে, নাসার বিজ্ঞানীরা যা জানে না।

১২. হিন্দুধর্ম ও ভগবানের বিরুদ্ধে লেখালেখি করার কারণে মৃত্যুহুমকি পেয়েছেন এক ছাত্রনেতা।

১৩. নেপালে একাধিক গির্জার সামনে বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে হিন্দু মোর্চা নেপাল নামের একটি সংগঠন।

১৪. "রামায়ণ, মহাভারত, গীতার মতো ধর্মগ্রন্থে লেখা প্রতিটি বাক্য কোটি কোটি মানুষ বিশ্বাস করেন, মেনে চলেন। তাঁদের কুত্‍সা লিখলে জিভ কেটে নেওয়া হবে," - ঘোষণা দিয়েছে রাম সেনা।