১ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

নিদ্রা অপেক্ষা নামাজ উত্তম... থুক্কু! ... ধর্ম অপেক্ষা বিয়ার উত্তম

(অনূদিত)

ধর্ম অপেক্ষা বিয়ার উত্তম, কারণ:

১. বিয়ার না খাওয়ার কারণে কেউ কাউকে হত্যা করে না।
২. কীভাবে সেক্স করা উচিত, বিয়ার সে নির্দেশনা দেয় না।
৩. বিয়ারের কারণে কখনও কোথাও যুদ্ধ হয়নি।
৪. যাদের চিন্তাক্ষমতা কম, তাদের ওপরে বিয়ার চাপিয়ে দেয়া হয় না।
৫. বিশেষ ব্র্যান্ডের বিয়ার খাবার কারণে কাউকে অন্য ব্র্যান্ডের ভক্তরা মেরে ফেলে না, ফাঁসিতে ঝোলায় না, ক্রুশে চড়ায় না, পাথর ছুঁড়ে হত্যা করে না।
৬. বিয়ারের বোতল বা ক্যানের গায়ে প্রকৃত তথ্য উল্লেখ করার আইন আছে।
৭. বিয়ারের অস্তিত্ব প্রমাণের জন্য উদ্ভট কল্পনার আশ্রয় নিতে হয় না।
৮. সম্পূর্ণভাবে বিয়ারাসক্ত হয়ে পড়লে চিকিৎসা ও নিরাময়ের ব্যবস্থা আছে।
৯. বিয়ার বলেছে বলে কেউ কখনও আস্ত প্লেন নিয়ে ঢুকে পড়ে না আকাশচুম্বী অট্টালিকায়।
১০. বিয়ার বাস্তব।
১১. বিয়ার পানের পর সবাইকে বন্ধু মনে হয়। ধর্ম-মদ পানের প্রতিক্রিয়া এর ঠিক উল্টো।
১২. বিয়ারপান-প্রতিক্রিয়া সহজেই দূর হয়। ধর্মের হ্যাংওভার কাটে না।
১৩. অন্য ব্র্যান্ডের বিয়ার পান করলে নিজস্ব প্রিয় ব্র্যান্ডের বিয়ার কাউকে নরকে যাবার অভিশাপ দেয় না।
১৪. ধর্ম পান করা যায় না।
১৫. বিয়ার পান করে মৃত্যুর অগেই স্বর্গসুখ লাভ করা সম্ভব।
১৬. সমস্যা ভুলতে সাহায্য করে বিয়ার। আর ধর্ম তো তা করেই না, বরং সৃষ্টি করে নিত্যনতুন সমস্যার।
১৭. বিয়ারের বিজ্ঞাপন বড়োজোর এক মিনিট দীর্ঘ হয়। আর ধর্ম বিষয়ক অনুষ্ঠান...
১৮. বিয়ার আর পিৎসা - দারুণ এক কম্বিনেশন। কিন্তু ধর্ম আর পিৎসা?
১৯. বিয়ার পান করে পার্টি জমানো সম্ভব। একবার শুধু কল্পনা করুন, পার্টিতে ধর্মালোচনা চলছে...

(১৩.০১.১০ তারিখে প্রথম প্রকাশিত)