৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৫

ডাস্টবিন থেকে কুড়আনো চিন্তা - ০৭

লিখেছেন ধর্মব্যবসায়ী

২১.
- অ্যালাফাক কী দিয়ে তৈরি ?
- কল্পনা দিয়ে।

২২.
- আপনি কি ‘এপ’ থেকে বিবর্তনের মাধ্যমে মানুষ হওয়া বিশ্বাস করেন?
- যেটা লক্ষ লক্ষ বছর ধরে ক্রমে ক্রমে হয়েছিল?
- হ্যাঁ।
- না, করি না।
- আপনি মানুষ থেকে বাঁদর তৈরি হওয়া বিশ্বাস করেন, যেটা কিনা এক মুহুর্তে হয়েছিল?
- হ্যাঁ, কারণ কুরানে (২:৬৫) এটা বলা আছে।

২৩.
মুহম্মদের আরেক নাম ছিল কাShame.

২৪.
নাস্তিক: আল্লাহ কই থাকে?
মমিন বান্দা: আপনে আগে বলেন, দুধে মাখন (ক্রিম) কই থাকে?
নাস্তিক: (যদিও নাস্তিক লোকটা নিশ্চিতভাবেই জানে যে দুধে ক্রিম থাকে, তবুও বলল) দুধে আবার ক্রিম আসবে কই থেকে? দুধে ক্রিম-টিম থাকে না।
মুমিন বান্দা: আপনি তো মিয়া গাধা! দুধ থেকে ক্রিম আলাদা করা যায়, ক্রিম থেকেই ঘি হয়।
নাস্তিক: মিথ্যা কথা! দুধে ক্রিম-টিম নাই, আপনে কেমনে জানলেন যে, ক্রিম থাকে?
মুমিন বান্দা: আমি নিজে দেখছি, ক্রিম আলাদা করা যায়। হাত দিলে বুঝবেন প্রায় মধুর মত ঘন, রঙ হচ্ছে গাড় অফ হোয়াইট।
নাস্তিক: ও, আপনি তাহলে দুধ থেকে ক্রিম আলাদা করে ক্রিম দেখেছেন, স্পর্শ করেছেন। তাহলে ঠিক আছে। বিশ্বাস করলাম দুধে ক্রিম থাকে তার সবটা জুড়ে, সুষমভাবে।
মুমিন বান্দা: আপনার প্রশ্ন ছিল - আল্লাহ কই থাকে? তাহলে বলি - দুধে মাখন যেভাবে থাকে, আল্লাহ তেমন সর্বব্যাপী বিরাজমান।
নাস্তিক: ধরা খাইছেন, ভাই! দুধে ক্রিম আছে, এটা আপনি বিশ্বাস করেন কারণ আপনে আলাদা করে ক্রিম চোখে দেখেছেন, ছুঁয়ে দেখেছেন, তারপরেই নিশ্চিত হইছেন। এইবার আপনে আল্লারে সবকিছু থেকে আলাদা করে দেখান।
মুমিন বান্দা: তুই তো শালা নাস্তিক।
নাস্তিক: এই ব্যাপারে আমি আপনার সাথে একমত।

২৫.
মুখ দিয়েছেন যিনি, আহার দেবেন তিনি।
তবে আহার না দিতে পারলে একটা দুর্ভিক্ষ দিয়ে মুখগুলো বন্ধ করার ব্যবস্থাও তিনিই করবেন।