৬ জুলাই, ২০১৫

নাম দিয়ে যায় চেনা

আরবি নামগুলোর বাংলা অর্থ বিষয়ক তুমুল আলোচনার প্রেক্ষাপটে ২০১২ সালে ধর্মকারীতে প্রকাশিত এই লেখাটি রিপোস্ট করা হলো।

না-বুঝে কোরান পড়া জাতি তাদের সন্তানদের আরবি নাম (অনেকের ধারণা - ইছলামী নাম) দেবে না বুঝেই, সেটাই তো স্বাভাবিক। শ্রুতিমধুর বাংলা নাম তাদের অধিকাংশের কাছেই হিন্দুগন্ধী বলে যে-নামগুলোয় তারা ভূষিত করে সন্তানদের, সেসবের বাস্তব অর্থ যদি তারা জানতো!

লিখেছেন  নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক

আরবি নামগুলার অর্থ যে কী ভয়ংকর হতে পারে..!

কারও নামের সাথে মিলে গেলে, প্লিজ, মাইন্ড খাইয়েন না।

আমার চোখে নাম কেবল নির্দিষ্ট কতগুলি ধ্বনি, এর চেয়ে বেশি কিছু নয়।

তালাব - পাতিশিয়াল

তাওর - বলদ

বকর - গাভী

জামাল - উট

নামির - বাঘ

ওয়াহিদ (waheed al qarn) - গণ্ডার

আসাদ - সিংহ

হিমার - গর্দভ

নাসির (نسر) - ঈগল

জারাফা - জিরাফ

মায়িজ/মায়েজ - ছাগল

হ্যাসান (حصان) - ঘোড়া

খিন্জির>খিজির- শূকর

আর এগুলোর সাথে আল-বিন-বিনতে এসব জুড়ে দিলে তো আরও ভয়ংকর অর্থ দাঁড়ায়:

আবু-বকর - গরুর আব্বা

জামাল উদ্দিন - ধর্মের উট

ইবনে মায়েজ - ছাগলের পুত্র

বিনতে তাওর - বলদের কন্যা

আরও আছে, কমু না!

* চোখ-কান-নাক-মুখ খোলা রেখে আরবি নাম রাখুন!