২৭ জুন, ২০১৫

বিবিধ বীভৎস বিবাহবহুল ধর্মগুলোর সমকামী বিবাহবিরোধিতা

যে কোনও লিঙ্গের দু'জন প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ পরস্পরকে ভালোবেসে একসঙ্গে থাকতে চাইলে তাতে অন্য কারুর কী সমস্যা, ভেবে পাই না। তারা তো তাদের ভালোবাসার ধরনটি চাপিয়ে দিচ্ছে না অন্যদের ওপরে! তারা তো বলছে না, তাদের ভালোবাসার ধরনটাই একমাত্র ছহীহ!

তারা তাদের মতো করে পরস্পরকে ভালোবাসলে অন্যদের ভালোবাসা কি ক্ষতিগ্রস্ত হয় কোনওভাবে বা কোনও ব্যাঘাত ঘটে অন্যদের জীবনচর্চায়? অধিকার খর্ব হয়?

হয় না। তবু তাদের ভালোবাসাবাসির ধরনটা আমার জন্য প্রযোজ্য নয় বলেই যদি আমি সেটার বিরোধিতা করি, বিদ্বেষ প্রকাশ করি, তাহলে আমি নিশ্চিতভাবেই কূপমণ্ডূক, হীন, সংকীর্ণমনা ও ছোটলোক।

গতকাল সুপ্রিম কোর্টের রায়ে আমেরিকায় সমকামীদের বিয়ে করার অধিকার দেয়া হয়েছে। এতে জয় হয়েছে মানবতার, মানবাধিকারের। তবে মানবতার জয়, মানুষের সমান অধিকারের ব্যাপারগুলো ধর্মগুলো কখনওই হজম করতে পারে না। ফলে এমন বিয়ে ধর্মসম্মত নয় - এই জাতীয় অনুমেয় অনুযোগ ও ঘ্যানরঘ্যানর শুরু হয়েছে ইতোমধ্যেই। এ বিষয়ে আমেরিকায় এখন সবচেয়ে উচ্চকণ্ঠ খ্রিষ্টানেরা। 

তবে মজার কথা হচ্ছে, তাদের বাইবেলে যতো ধরনের কুৎসিত বিয়ের কথা উল্লেখ আছে, সে সম্পর্কে ধারণা নেই অধিকাংশ খ্রিষ্টানেরই, গড়পড়তাভাবে যারা হুইন্যা খ্রিষ্টান।

বাইবেলে বর্ণিত বিচিত্র বিবাহ বিষয়ে একটি পোস্টার:

বানিয়েছেন কৌস্তুভ
(পূর্ণাকারে দেখতে ছবির ওপরে ক্লিক করতে হবে)

এবারে কোরান-হাদিস, নবীর জীবনী ও ইছলামের ইতিহাস থেকে ইছলামী বিবিধ বিবাহ সম্পর্কে জ্ঞান আহরণ করা যাক:
- এক পুরুষের ঘরে চার স্ত্রী (নবীর ঘরে তো একটা সময়ে একসঙ্গে গণ্ডা দুয়েক বিবি ছিলো)
- ৫১ বছরের পুরুষের সঙ্গে ৬ বছর বয়সী বন্ধু-কন্যার বিয়ে
- ঋতুমতী হয়নি, এমন মেয়েকে কোরান-অনুমোদিত বিয়ে (সুরা ৬৫:৪)
- চাচার সঙ্গে ভাতিজির ইনসেস্ট বিয়ে (নবী তার চাচাতো ভাইয়ের সঙ্গে তার কন্যার বিয়ে দিয়েছিল)
- মুতাহ বিয়ে, যা মূলত ছহীহ উপায়ে নারীদের দেহভোগের লাইসেন্স
- যুদ্ধবন্দিনীকে বিয়ে
- ধর্ষিতা ও ধর্ষকের সঙ্গে বিয়ে
...
হিন্দু ধর্মগ্রন্থগুলোতেও উৎকট সব বিয়ের বর্ণনা আছে বলে মনে হয়। তবে সনাতন ধর্ম বিষয়ে আমার জ্ঞান খুবই অপ্রতুল বিধায় অন্য কেউ যদি আলোকপাত করতো এ বিষয়ে, ভালো হতো খুব।


মোদ্দা কথা এই:

ওপরে বর্ণিত কুৎসিত, অনৈতিক ও অমানবিক বিয়েগুলো যেসব ধর্মবিশ্বাসীর কাছে স্বাভাবিক ও গ্রহণযোগ্য, তাদের মুখে সমকামী বিয়ের বিরোধিতার কথা শুনলে স্রেফ ঘেন্না হয়।