১৭ মে, ২০১৫

সহী ইসলামের খোঁজে

লিখেছেন জুলিয়াস সিজার


"রবীন্দ্রনাথের নামে বিশ্ববিদ্যালয় করলে আল্লাহর গজব নেমে আসবে। কারণ এটা ইসলামসম্মত নয়।"

এমন লিফলেট বিতরণের সময় পুলিশ কয়েকজনকে আটক করেছে। আটক হওয়া ব্যক্তিরা সবাই মুখে ইসলামসম্মতভাবে দাড়ি রেখেছে। মাথায় টুপি পরা। প্যান্ট পরা পায়ের গোড়ালির ওপরে। তবুও তারা সহী মুসলমান নয়! 

কারণ -
সহী মুসলমান হচ্ছে সেই মডারেট, যে প্যান্ট হাঁটুর কাছাকাছি পরে ঘুরে বেড়ায়। জীবনে মাথায় টুপি দেয় না। এক ওয়াক্ত নামাজ পড়ে না, তবে বলে বেড়াবে, "ইহা সহী ইসলাম নয়!"
আটক হওয়া ব্যক্তিরা মৌলবী এবং ধর্মান্ধ। কুরবানির গরুটা জবাই করার জন্য তাদেরই লাগে। তবুও তারা সহী মুসলমান নয়!

কারণ -
সহী মুসলমান হচ্ছে সেই মডারেট, যে কুরবানীর ঈদের দিন নামাজটাও পড়ে না। বসে গরুর হাড্ডি চিবায় আর ফেসবুকে তর্ক করে বেড়ায়, "ইহা সহী ইসলাম নয়!"
এই আটক হওয়া জঙ্গিরা অন্য যে কোনো মডারেট মুসলিমদের চেয়ে কুরান হাদিস বেশিই পড়েছে। তাদের ওয়াজ শোনার জন্য কত টাকা ব্যয় করে ফেলছে মুসলমানেরা। তবুও তারা সহী মুসলমান নয়! 

কারণ- 
সহী মুসলমান হচ্ছে মডরেট খচ্চরেরা, যারা এক লাইনও কুরান-হাদিস না পড়ে, অনলাইনে সানি লিওনের আপডেট ভার্সন খুঁজে খুঁজে মন্তব্য করে বেড়াবে, "ইহা সহী ইসলাম নয়!"
সেই মোল্লারা কুরান পড়ে হাফেজ। অথচ তারা নাকি কুরান শরীফ বোঝে না। কিন্তু তাদের দাবিটাই ইসলামসম্মত! তাদের দাবি - নাস্তিক রবীন্দ্রনাথের নামে বিশ্ববিদ্যালয় না খুলে কোনো মুসলিম দার্শনিকের নামে খোলা হোক। নাস্তিকের জন্য তাদের কত ঘৃণা, তবু তারা মুসলমান নয়!

কারণ - 
মুসলমান হচ্ছে সেই মডারেট, যে ৩০টা রোজার একটাও না রেখে মার্কেটে মার্কেটে ঘুরে মেয়ে দেখবে আর ইসলামে সম্মান রক্ষায় বলে বেড়াবে, "ইহা সহী ইসলাম নয়!"