১ মার্চ, ২০১৫

খুনির রকমফের ও সহী মুসলমান

লিখেছেন জুলিয়াস সিজার

বইমেলায় অনেক মানুষ ছিল। অনেক লেখক ছিল। কাউকে কোপানো হয়নি। বেছে নিয়ে কোপানো হয়েছিল হুমায়ুন আজাদকে। কারণ হুমায়ুন আজাদের লেখা মুসলিমদের ধর্মানুভূতিতে আঘাত দিয়েছিল।

এত মানুষের মধ্যে টার্গেট করে অভিজিৎ রায়কে নির্মমভাবে খুন করা হলো। কেন? কারণ তাঁর লেখা মুসলিমদের ধর্মানুভূতিতে আঘাত দিয়েছিল।

রাজীব হায়দারকে(থাবা বাবা) খুন করা হয়েছিল। তাও সেই একই কারণ। রাজীব হায়দারের লেখা মুসলিমদের ধর্মানুভূতিতে আঘাত দিয়েছিল।

এই তিনটি হত্যাকাণ্ড খেয়াল করুন। সবখানেই মুসলিমদের ধর্মানুভূতি জড়িত খুনের পেছনে। তাদের ধর্মানুভূতি যে চায়না মাল, তা তো আর লেখকদের দোষ না! তবুও এই হত্যাকাণ্ডগুলোর সাথে নাকি ইসলামের কোনো সম্পর্ক নেই। আপনাকে তাদের সাথে গলা মিলিয়ে বলতে হবে:
ইহা সহী ইসলাম নয়। ইসলাম শান্তির ধর্ম। তারা ইসলামের সংজ্ঞা জানে না।
তারা ফ্রান্সে মানুষ মারে, ডেনমার্কে মারে, কানাডায় মারে, অস্ট্রেলিয়াতে মারে, ইরাকে তো মারেই এবং বোনাস হিসেবে অমুসলিম মেয়েদের গনিমতের মাল হিসেবে বিক্রি করছে। বাংলাদেশে (বাংলাস্তানে), পাকিস্তানে অমুসলিম কাউকে ফেসবুকে লিখতে দেখলেই তাদের ধর্মানুভূতি আহত হয়ে যায়। গোঁটা গ্রাম পুড়িয়ে দেয়। লুটপাট, ধর্ষণ, জায়গা দখল এসব তো বাম হাতের ব্যাপার।

আপনাকে বলতে হবে এটা সহী ইসলাম নয়। তারা সহী মুসলমান নয়। তো আপনি সহী মুসলমান কোথায় পাবেন? পৃথিবীর কোথাও পাবেন না। তবে বাংলাদেশের অনলাইনে পাবেন। কিছু ছাগল অনলাইনে এসে আপনাকে শান্তি বোঝাবে, ইসলাম বোঝাবে। তারা বলবে:
খুনির বিচার চান, সমস্যা নেই। তবে ইসলাম নিয়ে কিছু বলবেন না।
এরাই একমাত্র সহী মুসলমান! এছাড়া পৃথিবীতে আর কোনো সহী মুসলমান নেই।

----------

১.
প্রথম শ্রেণীর খুনি: যারা খুন করেছে।

২.
দ্বিতীয় শ্রেণীর খুনি: মডরেট জামাতি।

মুখের কথা: "এই খুন সমর্থন করি না। তবে ইসলাম নিয়ে কোন লেখালেখিও সমর্থন করি না। ইসলামে কোন ভুল নেই। ইসলাম কোন ঠাট্টাতামাসার বিষয় নেই। খুনি এবং খুন হওয়া দুজনকেই ধিক্কার।"

মনের কথা‬:  "ভালোই হয়েছে, সরিয়ে দিয়েছে দুনিয়া থেকে। আল্লাহ, নবী, ইসলাম নিয়ে লিখলে এমন শাস্তিই প্রাপ্য।"

৩.
তৃতীয় শ্রেণীর খুনি: মডারেট সুশীল মুসলমান।

মুখের কথা: "দেখুন, এই খুন কোনোভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়। ইসলাম এটা কোনোভাবেই সমর্থন করে না। ইসলাম মানে শান্তি। তবে হ্যাঁ, নবী-রাসুল নিয়ে লেখালেখি করলে সেটাও একজন মুসলমান হিসেবে আমি কোনোভাবেই সমর্থন করব না, যদিও "পিকে" অনেক ভালো মুভি এবং ওয়াজে মোল্লারা অন্য ধর্মের দেব-দেবী আর উপাস্যদের নিয়ে যে চটি-বয়ান দেয়, তা শুনতে অনেক ভালো। খুনিকে ধিক্কার। তবে ধর্ম নিয়ে এসব লেখা খুনখারাবি আরো বাড়াবে। তাই ধর্ম নিয়ে (আসলে ইসলাম নিয়ে) কিছু না লেখাই ভালো।"

মনের কথা: "আল্লাহ, নবী, ইসলাম নিয়ে বাজে কথা বললে তার শাস্তি এমন না হয়ে কেমন হবে?"