রবিবার, ৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৩

লিংকিন পার্ক - ৬৮


১.
সরকারী অর্থে পরিচালিত 'সামাজিক জীবনে ধর্মের ভূমিকা' নামক গবেষণায় দেখা গেছে, ধর্মবিশ্বাসীরা একই ধর্মানুসারীদের প্রতি সাহায্যপরায়ণ বা নিঃস্বার্থ হয়তো হতে পারে, তবে ধর্ম সামগ্রিকভাবে সমস্ত মানুষের প্রতি সদয় ও সহানুভূতিশীল হতে সহায়তা করে না। আরেকটি গবেষণার ফলাফল: নাস্তিক ও অজ্ঞেয়বাদীদের চেয়ে ধার্মিকেরা কম সহানুভূতিশীল। 

২.
গর্ভধারণের সম্ভাবনা আছে বলে ধর্ষণের শিকার এক মেয়েকে ক্যাথলিকদের পরিচালিত দু'টি হাসপাতাল সাহায্য  করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

৩. 
এই ধরনের খবর পড়লে মনটা ভালো হয় যায়। ধর্মের গোঁড়ামি ত্যাগ করে ইসরায়েলে এক মুসলিম আর এক ইহুদির 'সুমিষ্ট ও সুস্বাদু' যৌথ ব্যবসাপ্রকল্প সফলভাবে সমৃদ্ধি লাভ করে চলেছে। আইসক্রিম পার্লার খুলেছে তারা।

৪. 
ডানপন্থী খ্রিষ্টান সংগঠনের সমকামবিরোধী মহিলা আইনজীবী শিশু পর্নোগ্রাফির অভিযোগে ধরা পড়েছে। এমনকি সে তার নিজের চোদ্দ বছর বয়সী কন্যার সঙ্গে দুই পুরুষের যৌনসঙ্গমের দৃশ্যের ভিডিও করেছে একাধিকবার। এবং মোবাইলের ভিডিওতে ধারণ করেছে নিজের কন্যার সঙ্গে যৌনসম্পর্ক স্থাপনের দৃশ্য। 

৫.
ধর্মমনাদের বড়ো একটি অংশ নিজেদের ঈমানদণ্ড নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থ এবং তারা মনে করে, ধর্ষণের পেছনে সব সময়ই মেয়েদের উস্কানি, ইঙ্গিত বা পরোক্ষ আমন্ত্রণ থাকে। যেভাবেই হোক, ধর্ষণের দায়ভার তারা মেয়েদের ওপরে চাপিয়ে দিতে ব্যগ্র। মেয়েদের পোশাক, আচরণ ইত্যাদি কারণে ধর্ষণ ঘটে বলে যারা দাবি করে, তাদের উদ্দেশে বাংলায় লেখা একটি বিধ্বংসী পোস্ট। 

৬. 
(লিংক: সুনন্দ পাত্র)

৭.
ধর্মযাজকদের দ্বারা ধর্ষিত শিশুদের পক্ষ চার্চ কখনওই নেয় না। বরং চার্চের সুনাম অক্ষুণ্ণ রাখতে যে কোনও অপকর্ম সাধনে দ্বিধা করে না ধর্মবাজেরা। এই ঘটনাগুলো সযত্নে গোপন রাখা হয়, ধর্ষকদের সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থাও করা হয়। লস এঞ্জেলেসের চার্চও সেটার ব্যতিক্রম নয়। 

৮.
আমেরিকার অ্যারিজোনায় রিপাবলিকান দলের ধর্মপীড়িত মস্তিষ্কজাত প্রস্তাবটি বাস্তবায়িত হলে সেখানে নাস্তিকদের উচ্চশিক্ষা লাভের পথ রুদ্ধ হয়ে যাবে। 

৯.
ক্যাথলিক চার্চ গর্ভপাতের বিরোধী, কারণ তারা মনে করে প্রতিটি বীর্যকণাই পবিত্র। তবে ঠ্যালায় পড়লে তারা সাত মাসের ভ্রূণকেও জীবন বলে মানতে রাজি হয় না। সংবাদের বিশদ বিশ্লেষণ।
(লিংক: Turna Ember Bornofhatred Exitium)

১০.
পঙ্গু মহিলাকে ধর্ষণ করে জেল খাটা ধর্মযাজক আবার ফিরে গিছে চার্চে। তার আগের দায়িত্বে। 

১১.
শ্রদ্ধাভাজন এক ইহুদি ধর্মবাজের ১০৩ বছরের জেল হয়েছে। কারণটা বৈচিত্র্যহীন - ধর্মবাজদের চিরাচরিত শিশুকামিতা। 

১২.
ভ্যাটিকান শিশুকামীদের সবচেয়ে বড়ো সংগঠনই শুধু নয়, বিপুল সম্পত্তির অধিকারী একটি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানও। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের খলনায়ক মুসোলিনির লক্ষ-কোটি ডলার ব্যবহার করে বিশাল প্রতিপত্তির মালিক হয়েছে ভ্যাটিকান। আবারও নিশ্চিত হোন, ধর্মব্যবসার চেয়ে লাভজনক ও ঝুঁকিহীন কোনও ব্যবসা নেই।

১৩.
ঊনিশ বছর বয়সী এক তরুণ আমেরিকার লুজিয়ানার সৃষ্টিতত্ত্ববাদীদের জীবন নরকে পরিণত করে দিচ্ছেন। 

১৪.

blog comments powered by Disqus