বৃহষ্পতিবার, ৩১ মে, ২০১২

আরব লীগ সম্মেলন



বিশ্বাসের বিষ শ্বাস


"পৃথিবীর সমস্ত গে আর লেসবিয়ানকে বিদ্যুতায়িত কাঁটাতারের দেয়ালের অপর পাশে আটকে রাখা দরকার, যাতে তারা বেরোতে না পারে সেখান থেকে। তারপর কয়েক বছর পেরিয়ে গেলে সমকামীরা এমনিতেই নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে পৃথিবীর বুক থেকে। কারণ তারা সন্তানোৎপাদন করতে পারবে না যে!" - এ বিশ্বকে সমকামীমুক্ত করার এমন হিটলারী রেসিপি প্রস্তাব করেছিল যে ধর্মযাজক, সে মিডিয়ার সঙ্গে কথা বলছে না তো বটেই, তাছাড়া তার অনুসারীদের কাছ থেকে পাচ্ছে বিপুল ও উচ্চকণ্ঠ সমর্থনও। কারণ ধর্মবিশ্বাস সব সময়ই মগজখেকো; মাথায় সুস্থ চিন্তার ক্ষমতা, বিচারবোধ ও মানবতাবোধ বিলুপ্তির পেছনে তার অবদান সবচেয়ে বেশি।

ধর্মগর্দভদের কর্মকাণ্ড মোটামুটিভাবে গড়পড়তাভাবে প্রায় অনুরূপ, সিএনএন-এর ছয় মিনিটের ভিডিও-রিপোর্ট তার উপর্যুপরি প্রমাণ দেখুন।

কুসংস্কার বৃক্ষ



লিংকিন পার্ক - ৪৮


১.
"পৃথিবীর সমস্ত গে আর লেসবিয়ানকে বিদ্যুতায়িত কাঁটাতারের দেয়ালের অপর পাশে আটকে রাখা দরকার, যাতে তারা বেরোতে না পারে সেখান থেকে। তারপর কয়েক বছর পেরিয়ে গেলে সমকামীরা এমনিতেই নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে পৃথিবীর বুক থেকে। কারণ তারা সন্তানোৎপাদন করতে পারবে না যে!" - এ বিশ্বকে সমকামীমুক্ত করার এমন হিটলারী রেসিপি প্রস্তাব করেছে এক ধর্মবাজ। নিশ্চয়ই ধর্ম সব সময়ই মানবতামণ্ডিত। 

২. 
অনেক গোপন দলিল ফাঁস হয়ে গেছে বলে ভ্যাটিকান স্পষ্টতই বিব্রত। খোদ পোপের এক কর্মচারীকে গ্রেপ্তার করেছে ভ্যাটিকানের পুলিশ। ভারি অবাক হলাম পড়ে। ঈশ্বর এতো নিষ্ক্রিয় কেন? তার দূতাবাসকে কেলেংকারির মুখোমুখি হওয়া সে রহিত করতে পারলো না? আর ঈশ্বরময় দেশে পুলিশের প্রয়োজনটা কোথায়, তা-ও ঠিক বোধগম্য নয়।

৩. 
কোরানে সুরা নিসায় স্ত্রী-প্রহারের অনুমতি দেয়া হয়েছে স্বামীকে। এ বিষয়ে এতো বিশদ বিশ্লেষণ ও গবেষণা অন্তত আমার চোখে আর পড়েনি। আরও অবশ্যদ্রষ্টব্য: স্ত্রী-প্রহারের ইসলামী তরিকাগুচ্ছ।

৪.
এমন অনেক বর্বর, নৃশংস কাজ আছে, যেগুলো অবিশ্বাসীদের পক্ষে ঘটানো কোনওভাবেই সম্ভব নয়। কারণ সেসব করতে গেলে সর্বাগ্রে প্রয়োজন বিশ্বাস। এই যেমন মেক্সিকোর এক মহিলা উপবাস পালন ও প্রার্থনাপাঠের পর তার নিজের পাঁচ বছর বয়সী পুত্রসন্তানের চোখ উপড়ে ফেলেছে। তার বিশ্বাস ছিলো, এভাবে 'পৃথিবীকে ধ্বংসের মুখ থেকে রক্ষা করা সম্ভব'। বদ্ধোন্মাদ ইব্রাহিম নবীর ছেলে হত্যার উদ্যোগের সঙ্গে এই ঘটনার চরিত্রগত কোনও পার্থক্য দেখি না।

৫. 
আল্যার প্যাঁদানি খাওয়া আশঙ্কাজনকভাবে বাড়ছে। অথচ কোনও এক রহস্যজনক কারণে সে সর্বশক্তিমান হয়েও কারোর একটি যৌনকেশও উৎপাটন করতে পারছে না। ফলে এগিয়ে আসতে হচ্ছে তার অনুসারীদের। কুয়েতের সংসদ 'ব্ল্যাসফেমির অপরাধ মৃত্যুদণ্ড' আইনটি পাশ করেছে। কারণ হিসেবে আল্যা-পচানির হার বৃদ্ধির কথাই বলা হয়েছে।

৬. 
লেসবিয়ান জীবনযাপনের 'অপরাধে' এক মহিলার অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া অনুষ্ঠান পরিচালনায় অস্বীকৃতি জানিয়েছে ধর্মযাজক। শিশুধর্ষক ধর্মযাজকদের মৃত্যুর পর তাদের এই 'নৈতিকতা' কোথায় লুকিয়ে থাকে? 

ভবিষ্যৎ অন্ধকার, বোধহয়, এটাকেই বলে


পাঠিয়েছেন থাবা বাবা

মেয়েটার ভবিষ্যৎ তার ঠিক পেছনে দাঁড়িয়ে... ২০০৯ এর ন্যাশনাল জিওগ্রাফিক ম্যাগাজিনের ১০টা সেরা ছবির একটি।


হারাম-হালালের হালহকিকত


হে মিউজিকমত্ত মমিন মুসলমানগণ, তোমরা কি অবগত আছো যে, পেয়ারে নবী সঙ্গীত ও বাদ্যযন্ত্রের ঘোর বিরোধী ছিলো? কোরানে সরাসরিভাবে নিষেধ করা হয় নাই বটে, তবে ইঙ্গিত রহিয়াছে; এবং কোরানের পরে সবচেয়ে অথেনটিক কিতাব হিসাবে বিবেচিত বুখারী শরীফে নিষেধাজ্ঞা (ভলিউম ৭, বুক ৬৯, নাম্বার ৪৯৪v) উল্লেখ করা আছে স্পষ্টভাবেই।

আরও কিছু বাণী: 

Hadith Qudsi 19:5: "The Prophet said that Allah commanded him to destroy all the musical instruments, idols, crosses and all the trappings of ignorance." (The Hadith Qudsi, or holy Hadith, are those in which Muhammad transmits the words of Allah, although those words are not in the Qur'an.)

Muhammad also said:

(1) "Allah Mighty and Majestic sent me as a guidance and mercy to believers and commanded me to do away with musical instruments, flutes, strings, crucifixes, and the affair of the pre-Islamic period of ignorance."

(2) "On the Day of Resurrection, Allah will pour molten lead into the ears of whoever sits listening to a songstress."

(3) "Song makes hypocrisy grow in the heart as water does herbage."

(4) "This community will experience the swallowing up of some people by the earth, metamorphosis of some into animals, and being rained upon with stones." Someone asked, "When will this be, O Messenger of Allah?" and he said, "When songstresses and musical instruments appear and wine is held to be lawful."

(5) "There will be peoples of my Community who will hold fornication, silk, wine, and musical instruments to be lawful ...." -- 'Umdat al-Salik r40.0

এইবারে দেখা যাইতে পারে, আরও একটি ইছলামী তথ্যসূত্র কী মতামত প্রকাশ করিতেছে এই প্রসঙ্গে।

অতএব হে ঈমান্দার বান্দাগণ, তোমরা কি নবীজির নির্দেশ অবমাননা করিয়া সঙ্গীতশ্রবণ, গায়ন ও যন্ত্রবাদন অব্যাহত রাখিবে?

তোমাদিগের জন্য প্রথম ভিডিওতে দুই চৌদি ঈমান্দার এক অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করিতেছে বাদ্যযন্ত্র বিচূর্ণ করিয়া। তবে দ্বিতীয় ভিডিওটিতে যাহা প্রদর্শিত হইয়াছে - চৌদি পুরুষগণের সম্মুখে সঙ্গীতসহযোগে বালকদিগের বিশেষ অঙ্গভঙ্গির নৃত্য - তাহা সম্পূর্ণরূপেই হালাল বলিয়া প্রতীয়মান হয়। দেড় মিনিটের এই ভিডিওটি শেষ পর্যন্ত দেখা ফরজে আইন।

বুধবার, ৩০ মে, ২০১২

নিত্য নবীরে স্মরি – ৬০


পাঠিয়েছেন কজমিক ডাস্ট


কুফরী কিতাব: Infidel - Ayaan Hirsi Ali ও আরও দু'টি গ্রন্থ


১. 
Infidel - Ayaan Hirsi Ali 
সম্ভব হলে কিনে পড়ুন।
বাকিদের জন্য ডাউনলোড লিংক (২.১৬ মেগাবাইট)

২.
Superstition In All Ages: Common Sense - Jean Meslier
সম্ভব হলে কিনে পড়ুন।
বাকিদের জন্য ডাউনলোড লিংক (৪৫০ কিলোবাইট)

৩.
The Skeptic's Dictionary: A Collection of Strange Beliefs, Amusing Deceptions, and Dangerous Delusions
সম্ভব হলে কিনে পড়ুন।
বাকিদের জন্য ডাউনলোড লিংক (১৪.৫ মেগাবাইট)

প্রসাদ প্রহসন



হিচ্চড় - ০৪


২০১২ সালের Global Atheist Convention-এ ক্রিস্টোফারে হিচেন্সের স্মরণে একটি ভিডিও প্রকাশ করা হয়, যেটি কার্যত নানান বিষয়ে হিচেন্সের খাপখোলা বক্তব্যের মারমার কাটকাট একটি সংকলন। দৈর্ঘ্য - এগারো মিনিট।

প্রাগৈতিহাসিক ঈশ্বরচিন্তা



হা-হা-হাদিস – ৪৩

হে ঈমান্দার বান্দাসকল, তোমাদের জন্য অজস্র রসময় কথা গুপ্ত রহিয়াছে হাদিস শরিফে।
- সহীহ আল-ধর্মকারী
যে সকল মমিন-মমিনা নিদ্রাকালে নানাবিধ স্বপ্ন দেখে, তারা হয়তো জানে না যে, ভালো-ভালো স্বপ্ন আল্যাফাকের কুদরত, আর দুঃস্বপ্নগুলোর জন্য দায়ী শয়তান। তাই দুঃস্বপ্ন দেখে ভয় পেয়ে ঘুম ভেঙে গেলে বাম দিকে থুতু ফেলে আল্যাফাকের কাছে শয়তানের কবল থেকে মুক্তি চেয়ে দোয়া করলে সব মুশকিল আসান হয়ে যাবে।

Narrated Abu Qatada:
The Prophet said, "A good dream is from Allah, and a bad or evil dream is from Satan; so if anyone of you has a bad dream of which he gets afraid, he should spit on his left side and should seek Refuge with Allah from its evil, for then it will not harm him."
বুখারি শরিফ, Volume 4, Book 54, Number 513

মঙ্গলবার, ২৯ মে, ২০১২

বিভ্রমমুক্তির পর



কমেডি সংকলন


বেশ কয়েকজন নামজাদা নাস্তিক স্ট্যান্ড-আপ কমেডিয়ানের ধর্ম- ও ঈশ্বরপচানির ছোট একটি সংকলন। অধিকাংশ ভিডিওই ধর্মকারীতে আগে প্রকাশিত, তবু তেরো মিনিটের এই সংকলনটি নিশ্চিতভাবেই উপভোগ্য। 

কাকে মাইরতে কাকে মাইরেছো!


পাঠিয়েছেন কজমিক ডাস্ট

ইসলামে কাম ও কামকেলি - ১২


মূল রচনা: আবুল কাশেম (সেক্স এন্ড সেক্সুয়ালিটি ইন ইসলাম)
অনুবাদ: খেলারাম পাঠক

(সতর্কতা: নরনারীর যৌনাচার নিয়ে এই প্রবন্ধ। স্বাভাবিকভাবেই কামসম্পর্কিত নানাবিধ টার্ম ব্যবহার করতে হয়েছে প্রবন্ধে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যবহৃত ভাষার মধ্যেও তাই অশালীনতার গন্ধ পাওয়া যেতে পারে। কাম সম্পর্কে যাদের শুচিবাই আছে, এই প্রবন্ধ পাঠে আহত হতে পারেন তারা। এই শ্রেনীর পাঠকদের তাই প্রবন্ধটি পাঠ করা থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। পূর্ব সতর্কতা সত্বেও যদি কেউ এটি পাঠ করে আহত বোধ করেন, সেজন্যে কোনভাবেই লেখককে দায়ী করা চলবে না।)


যদি কেউ দৈবক্রমে ঋতুমতী স্ত্রীর সাথে সঙ্গম করেই ফেলে, সে ক্ষেত্রেও ঐশী সমাধান প্রস্তুত। 
সুনান আবু দাউদ, বুক নং-১১, হাদিস নং-২১৬৪:

আব্দুল্লহ ইবনে আব্বাস হতে বর্ণিত:
রক্ত যাওয়ার সময় যদি কেউ (ঋতুমতী স্ত্রীর সাথে) সঙ্গম করে ফেলে, তবে তাকে সদকা বাবদ এক দিনার দান করতে হবে। যদি রক্ত বন্ধ হওয়ার পর পরই সে এ কাজ করে, তবে তাকে দিতে হবে অর্ধেক দিনার।
সুনান আবু দাউদের ১নং ভলিউমের ০২৬৪নং হাদিসেও ঋতুকালীন সঙ্গমের কাফফারা হিসেবে এই একই বিধান দেয়া আছে।

যদি ঋতুস্রাব অত্যন্ত বেশি হয়, সেক্ষেত্রেও চমৎকার বিধান আছে ইসলামে। সাইয়েদেনা আলী এবং মহম্মদ (দঃ) উক্ত সমস্যার যে প্রতিবিধানের কথা বলেছেন, আবু দাউদ ও মুসলিম শরীফের হাদিসে তার তথ্যভিত্তিক বর্ণনা রয়েছে। অত্যন্ত সহজ এই ইসলামি বিধান অনুসরণ না করে আজকালকার মেয়েরা কেন যে গাইনকোলজিষ্টের চেম্বারে ছুটে মরে, ভেবে দেখা দরকার।
সুনান আবু দাউদ, বুক-১, হাদিস-০৩০২:
আলী ইবনে আবি তালেব হতে বর্ণিত:
যদি কোন স্ত্রীলোকের দীর্ঘ্য সময়ব্যাপী রক্ত যায়, তার উচিত প্রতিদিন নিজেকে পরিষ্কার করা এবং অতঃপর চর্বি অথবা তেল মিশ্রিত উলের কাপড়ের টুকরা ব্যবহার করা (অর্থাৎ উক্ত কাপড় দিয়ে যৌনাঙ্গটি বেঁধে রাখা)।
সহি মুসলিম, বুক-৩, হাদিস-০৬৪৭ এবং সহি মুসলিম, বুক-৩, হাদিস-০৬৫৮:
উম্মুল মোমেনিন আয়েশার বরাত দিয়ে এই হাদিসদ্বয়। ঋতুকালে কীভাবে নিজেকে পরিষ্কার রাখতে হয়, কীভাবে রক্তের দাগ মুছতে হয়, কীভাবে মোমের প্রলেপ দেয়া বস্ত্রখন্ড বাঁধতে হয়, কতদিন নামাজকালাম বন্ধ রাখতে হয় - এসবের বিস্তারিত বর্ণনা আছে এই হাদিস দু’টিতে।

সঙ্গমের পুর্বে যৌনসঙ্গীর সাথে কামকেলি করা বা শৃঙ্গারে রত হওয়া মানব প্রজাতির একটি স্বাভাবিক প্রবৃত্তি (এমনকি চতুষ্পদ জন্তুরাও সঙ্গমের পুর্বে কিছুক্ষণ শৃঙ্গার করে)। এটি খুবই আনন্দের বিষয় যে, মহম্মদও (দঃ) তার অনুসারীদের সঙ্গমের পুর্বে কিছুক্ষণ শৃঙ্গার করার জন্যে অনুপ্রাণিত করেছেন। কোনো প্রকার শৃঙ্গার ছাড়া পশুর মতো সরাসরি স্ত্রীলোকের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ার জন্যে তিনি অনুসারীদের তিরস্কার করেছেন। মহম্মদ (দঃ) এ ব্যাপারে যে সব সুপারিশ করে গেছেন, তার কিছু নমুনা পাওয়া যায় ইমাম গাজ্জালির রচনায় (রেফ-৭, পৃ-২৩৩)।
‘পরস্পরের কাছে যাওয়ার আগে তাদের কিছুক্ষন শৃঙ্গার করে নেয়া উচিৎ; দু’চারটি প্রীতিপ্রদ বাক্য বিনিময়, একটু চুমো দেয়া। নবী বলেছেন- “পশুরা যেভাবে একে অন্যের উপরে লাফিয়ে পড়ে, স্ত্রীদের উপর তোমরা কেউ সেভাবে ঝাপিয়ে পড়ো না। বরং (তার আগে) তাদের মধ্যে একজন বার্তাবাহক আসতে দাও”; তারা জিজ্ঞেস করল- “হে আল্লাহর রাসুল, এই বার্তাবাহকটি কে”; তিনি বললেন- “চুম্বন এবং প্রীতিময় বাক্য বিনিময়।” অতঃপর যদি তার আগে শেষ হয়ে যায়, তার উচিৎ অপেক্ষা করা যে পর্যন্ত না তার স্ত্রীর শেষ হয়’।
এটি অত্যন্ত আনন্দের বিষয় যে, মহম্মদ (দঃ) সঙ্গমের পূর্বে শৃঙ্গারের বিধান দিয়েছেন এবং পরস্পরের তৃপ্তিদায়ক যৌনকর্মের পক্ষে সুপারিশ করেছেন।

উপবাসের (রোজা) সময় চুমো দেয়া এবং পরস্পরের জিহ্বা লেহন করা:

সুনান আবু দাউদ, বুক নং-১৩, হাদিস নং-২৩৮০:
বিবি আয়েশার নিকট হতে আমরা জানতে পারি যে উপবাসরত অবস্থায়ও নবী তাকে চুমো দিতেন এবং জিহ্বা লেহন করতেন।

(চলবে)

নামাজনামা – ১৬


ছবিগুলান দেইখা মনে প্রশ্ন জাগে: মমিনেরা কি জুতাল্লাহরে সিজদা করে?




ইসলামপচানির শাস্তি


পরম শান্তির ধর্ম, মানবতার ধর্ম ইসলামে আল্লাহ-নবী ও ধর্মের 'মহত্ত্ব' ও 'পবিত্রতা' বিষয়ে ঠাট্টা-পরিহাস (blasphemy) করার শাস্তি কী, জানাচ্ছে এক ইসলামবাজ কোরান থেকে উদ্ধৃতি দিয়ে: 
তাদেরকে হত্যা করা হবে অথবা শূলীতে চড়ানো হবে অথবা তাদের হস্তপদসমূহ বিপরীত দিক থেকে কেটে দেয়া হবে অথবা দেশ থেকে বহিষ্কার করা হবে।
এখানেই কাহিনীর শেষ নয়। সেখানে আরও বলা হচ্ছে:
এটি হল তাদের জন্য পার্থিব লাঞ্ছনা আর পরকালে তাদের জন্যে রয়েছে কঠোর শাস্তি।
(সুরা ৫.৩৩)
খাইসে! বিয়াফক ডরাইসি! আমগোর কী হইবো তাইলে!

সোমবার, ২৮ মে, ২০১২

মমিন-ক্রসড্রেসারের বিড়ম্বনা



নিঃসীম নূরানী অন্ধকারে - ১৫


লিখেছেন তামান্না ঝুমু

৭১. 
ভারতবর্ষের শীতল জলে পরমহাঁসগণ করেছেন সন্তরণ, মরুভূমির তপ্ত বালিতে চরমউটগণ ফেলিয়া তাদের পবিত্র চরণ করেছেন বিচরণ। 

৭২.
মুহাম্মদ শব্দের অর্থ প্রশংসিত। আল্লা বলেছেন, সকল প্রশংসা আল্লার। তবে তার দাবী অনুযায়ী তার নামের আগে মুহাম্মদ বসানো উচিত নয় কি? মানে তার নাম ত হওয়া উচিত "মুহাম্মদ আল্লা"! তিনিই যদি সকল প্রশংসার মালিক হন তবে অন্য যে কাউকে মুহাম্মদ নামে ডাকা শিরক নয় কি? 

৭৩.
তিনিই প্রকৃত শয়তান, যিনি শয়তান সৃষ্টি করেছেন।

৭৪.
ছবি আঁকা হারাম। কিন্তু হজ্বে যাবার জন্য ফটোক তোলা হালাল। বিধর্মীদের সাথে বন্ধুত্ব করা হারাম। কিন্তু ওদের তৈরি সব জিনিস এবং সুযোগ-সুবিধা ভোগ করা হালাল। বিধর্মীরা মারা গেলে তাদের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় যাওয়াও হারাম। কিন্তু সত্যকে মিথ্যা, মিথ্যাকে সত্য বানিয়ে; জান-প্রাণ দিয়ে বিধর্মীদের দেশে বাস করা হালাল। এমন পূর্ণাঙ্গ জীবন-ব্যবস্থা আর কোথায় আছে, বলুন তো!

৭৫.
আল্লা একবার বলেছেন তিনি ৬ দিনে বিশ্ব সৃষ্টি করেছেন। আবার বলেছেন ৮ দিনে সৃষ্টি করেছেন। কোনটা সত্য? আর কোনো কিছু সৃষ্টি করার আগে তিনি দিন গণনা করলেন কী উপায়ে?

অবিশ্বাসীদের নিরন্তর বিনোদনের অফুরন্ত উৎস - ধর্মাচার


এক ধর্মের অনুসারীরা অন্য ধর্মের আচার, প্রথা ও রিচুয়াল নিয়ে হাসাহাসি করে, ঠাট্ট-মশকরা করে, কিন্তু তাদের নিজেদের ধর্মও যে একই রকম হাস্যস্পদ ও কিম্ভুত, সেটা তারা কোনও এক দুর্জ্ঞেয় কারণে উপলব্ধি করতে পারে না। আমরা, অবিশ্বাসীরা, পারি; তাই সকল ধর্মের আচার, প্রথা, রিচুয়াল আমাদের অফুরন্ত বিনোদনের খোরাক।


প্রতিবাদী আরেক সৌদি নারী


সৌদি নারীরা কি তবে প্রতিবাদী হয়ে উঠছে ক্রমশ? খুবই আশাব্যঞ্জক সংবাদ। সাম্প্রতিক একটি ঘটনা: শপিং মলে সেখানকার ধর্মীয় পুলিশকে রীতিমতো ধমক দিয়ে এক মেয়ে বললো, 'আমি নেইল পালিশ দেবো কি দেবো না, সেটা আপনার দেখার ব্যাপার নয়। আমার ইচ্ছে হলে আমি নেইল পালিশ দেবো।'

শুধু তা-ই নয়, মেয়েটি আরও জানালো তাকে, সে এই দৃশ্য ভিডিও করছে এবং তা ফেসবুক এবং টুইটারে প্রকাশিত হবার পথে। পুরো সংলাপটাই পড়ুন:

Saudi Woman: Get out of the mall?! I'll show you who's getting out of the mall! This is none of your business.

Why are you following me? What do you want from me? The government did not send you to follow me. The government said there would be no persecution (of women). Your job is to advise people and move on. You have no right to harass anyone. Enough.

Members of Religious Police: Get out of the mall. Move it.

Saudi Woman: Who's getting out? This is none of your business. You don't see other women here showing their hair... None of your business. I'm free to put on nail polish if I want to.

Members of Religious Police: Please, move on.

Saudi Woman: I'm not getting out. What are you gonna do about it? I'm not getting out. I'm standing right here. I'm standing right here. For your information, I'm filming it all. Here, smile for the camera. ...

(To policemen): You are in an official capacity, right? You received a complaint from a citizen about harassment, and it doesn't matter if it was done by government officials or not...

For your information, the video is on its way to Twitter and Facebook as we speak. One more word from you and it will reach Abd Al-Latif Aal Al-Sheik, and he will deal with your mess. You are not the boss of me, and you can't tell me not to wear nail polish. Lipstick on my mouth?! Come look at my mouth. Shame on you! And he pretends to be God-fearing… Don't' let him follow me. I am free to walk around this mall as I like.

প্রায় তিন মিনিটের ভিডিও। 

পাঁচটি ছবি




একাত্তরে হালাল নারীধর্ষণ


লিখেছেন নাস্তিক দীপ

একাত্তুরে পাকিস্তানি আর্মি কর্তৃক বাঙালি নারী ধর্ষণের জন্য যারা পাক আর্মিদের গালি দেন, তাদের জন্য পবিত্র কোরআন এবং হাদিসের আলোকে ব্যাখ্যা। আর যুদ্ধশিশুদের জন্যও পাকি আর্মিদের দায়ী করা চলবে না। এরপরেও যারা পাকি আর্মিদের শাস্তি-ক্ষমা প্রার্থনা করেন, তারা কিন্তু কোরআন-হাদিসের বিরুদ্ধে চলে যাবেন।
“তোমাদের জন্যে অবৈধ করা হয়েছে নারীদের মধ্যে সধবাগণকে (অন্যের বিবাহিত স্ত্রীগণকেও); কিন্তু তোমাদের দক্ষিন হস্ত যাদের অধিকারী- আল্লাহ তোমাদের জন্যে তাদেরকে বৈধ করেছেন”।
(সুরা ৪:২৪)
দক্ষিণ হস্ত অর্থাৎ, ডান হাত বলতে বুঝায় শক্তি প্রয়োগে প্রাপ্ত। ডান হাত শক্তি বা তলোয়ারের প্রতীক।
“তোমাদের দক্ষিন হস্ত যাদের অধিকারী- আল্লাহ তোমাদের জন্যে তাদেরকে বৈধ করেছেন”।
এই আয়াতের ব্যাখ্যায় জালালান বলেন- “অর্থাৎ, যাদেরকে তারা যুদ্ধের ময়দানে আটক করেছে, তাদের সাথে সহবাস করা তাদের জন্যে বৈধ, যদি তাদের স্বামীগণ দারুল হরবে জীবিতও থাকে” (দারুল হরব অর্থ - অমুসলিম রাষ্ট্র বা দেশ)।

অর্থাৎ স্বামী জীবিত আছে, এমন যুদ্ধবন্দীও ধর্ষণের উপযোগী।
আবুসাইদ আল খুদরি থেকে বর্ণিতঃ

মালে গনীমত (War Booty) হিসেবে আমাদের হাতে বন্দিনী আসলে আমরা তাদের সাথে সঙ্গমের সময় যোনিদেশের বাইরে বীর্যপাত ঘটাতাম। অতঃপর এ সম্পর্কে আল্লাহর রাসুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন- “তোমরা কি সত্যিই এরূপ কর”? এই প্রশ্নটি তিনি তিনবার করেন। (তারপর তিনি বলেন) – “যে সব আত্মা জন্ম নেয়ার জন্যে নির্ধারিত, সেগুলি আসবেই, পুনরুত্থানের দিন পর্যন্ত”।
সহি বুখারি: ভলিউম ৭, বুক নং-৬২, হাদিস নং-১৩৭।

রবিবার, ২৭ মে, ২০১২

জিহাদ মানে



নবীজির ঊরুচণ্ডালি


অনেকদিন আগে একটা ভিডিও দেখে নতুন একটা শব্দ (thighing) শিখেছিলাম। পোস্টও দিয়েছিলাম সে বিষয়ে। Thighing কী জিনিস? এক ধরনের যৌনচর্চা। কী ধরনের, তা অনুমান করে নেয়া দুরূহ নয় নিশ্চয়ই। তো এই thighing (বাংলায় 'ঊরুকাম' বলা যায়? বা 'ঊরুষ্কাম'?) একেবারে শিশুর ওপরে প্রয়োগ করারও অনুমতি আছে ইসলামে। অর্থাৎ তা হালাল। ওপরে দেয়া লিংকের ভিডিও দেখে বিশদ জেনে নিন।

আজ আরেক ভিডিও থেকে জানলাম, নবীজি নিজেও আয়েশার সঙ্গে thighing-এর চর্চা করতো আয়েশার ৬ থেকে ৯ বছর বয়স অব্দি। আলহামদুল্লিাহ। ইছলামে যে কোনও বয়সী মেয়ে ভোগের সামগ্রী। বলেন, সুবহানাল্লাহ।

মূলত স্লাইড সম্বলিত চার মিনিটের ভিডিওটি না দেখে অডিও শুনে নেয়া যেতে পারে। তবে সাবটাইটেল প্রয়োজন হলে ভিডিও দেখতে হবে। 


নানা রঙের মানুষ


নানাবিধ ধর্মবিশ্বাস ও মতধারার মানুষদের গড়পড়তা বৈশিষ্ট্যকে ব্যঙ্গ করে কার্ড গেমের আদলে বানানো ২৪টি কার্ড। চূড়ান্ত ট্রাম্পকার্ডটি দেখুন একেবারে শেষে।






নারীর সুরক্ষা নিশ্চিতকরণে বোরখার ভূমিকা


লিখেছেন কজমিক ডাস্ট

হিজাব বা পর্দা কি আসলেই নারীর সুরক্ষা নিশ্চিত করে? আমি জানি যে, এই ছবিটি দেখতে অশোভনীয় তাই পাঠকদের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। এটা পোস্ট করার মূল উদ্দেশ্য হচ্ছে যে, কয়েকদিন আগে আমি আরেকটি ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেছিলাম, যেখানে দু'জন পর্দানশীন নারীকে দেখে দুই যুবক লোলুপ দৃষ্টিতে তাকিয়ে ছিল। সেখানে আমি উল্লেখ করেছিলাম যে, বোরখা নারীদেরকে কুদৃষ্টি থেকে বাঁচাতে পারবে না। কিন্তু তখন একটি গ্রুপের কিছু মুমিন আমাকে বলেছিলেন যে, "ওরা শুধু দেখতেই পারবে, কিন্তু ছুঁতে পারবে না"। তাই এবার ছোঁয়ার ছবিও আপলোড করলাম। 


মুমিনরা প্রায়ই হিজাবকে ইভ টিজিং ও ধর্ষণের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষার জন্যে আল্লাহ্‌র দেওয়া ফর্মুলা বলে দাবী করেন। অথচ স্বয়ং মুহাম্মাদ কিন্তু কোথাও এটা দাবী করেননি। বরং মুক্তমনারা এই ধারণা করতেই পারে যে, ঈর্ষাপরায়ণ মুহাম্মাদ 'আমার বউ আমার সম্পত্তি কেউ নজর দিবা না' নীতিতে বিশ্বাসী ছিলেন বলে পর্দার পক্ষে আয়াতটি বানিয়েছিলেন যার খেসারত ১৪০০ বছর ধরে মুসলিম নারীদের দিতে হয়েছে এবং আরও দিতে হবে।

ছবিতে একটা জিনিস লক্ষ্য করবেন যে, নির্যাতিত বোরখা পরিহিতা নারীর পাশে আরেকজন বিনা বোরখায় দাঁড়িয়ে আছে অথচ তাকে কিন্তু লোকটি ছোঁয়ার সাহস পায়নি কারণ তার পোশাক আশাক দেখে ধারণা করা যায় যে এই মেয়ে সহজে ছেড়ে দেবে না। হৈচৈ করে লোক জড় করবে অথবা পুলিশে রিপোর্ট করে জেলের ঘানি টানাবে। কিন্তু এই বোরখা পরিহিতা হয়তো কোন রক্ষণশীল পরিবারের মেয়ে যেখানে এই কথা প্রকাশ করলে উল্টা তাকেই বেহায়া বলা হবে অথবা চার সাক্ষী হাজির করতে বলা হবে। 

শালীনতা বিষয়টি পুরোপুরি আপেক্ষিক। যেসব ছবি দেখে 'ওড়না বুকে দে' জাতীয় পেজের ফ্যানদের কান দিয়ে ধোঁয়া বের হয়, সেগুলো পশ্চিমাদের কাছে পুরোপুরি স্বাভাবিক। আবার যেসব বাংলাদেশী নারী ঠিকমত মাথায় ওড়না দিয়ে রাখেন, তাদের মাথার সামনের এক গোছা চুল বের হয়ে থাকতে দেখলে আরবরা হয়তো "আস্তাগফিরুল্লাহ, কেয়ামত আয়া পড়লো" বলে চিৎকার দেবে। এ থেকেই বোঝা যায় যে, হিজাব আসলে ইভ টিজিং-এর বিরুদ্ধে সুরক্ষা দিতে ব্যর্থ। এর জন্যে দরকার শিক্ষা, সচেতনতা ও নারীদের আত্মবিশ্বাস। শিশুদের ছোট থেকে যদি বোঝানো যেত যে, নারীরাও আরেকজন আলাদা মানুষ, কারও শস্যক্ষেত অথবা গবাদি পশু নয় তবে এরকমটি হত না।

সহজ শরিয়া আইন শিক্ষা



অকুতোভয় এক সৌদি নারীর গল্প


নিশ্চয়ই ইসলাম নারীকে দিয়েছে সর্বোচ্চ সম্মান। আর তাই নারীর সম্মান অটুট রাখতে ইসলামের জন্মদাতা দেশ চৌদি আজব এখন পৃথিবীর একমাত্র দেশ, যে-দেশ অলিম্পিকে কোনও নারী প্রতিযোগীকে পাঠাবে না। নারীদের সম্মান রক্ষার্থে সে-দেশের আইনপ্রণেতারা নানাবিধ আইন প্রবর্তন করে রেখেছে। নারী সেখানে সম্পদের মতো, যার মালিক পুরুষ। নারীরা অবলা, তাদের সামর্থ্য নেই নিজেদের সম্মান বজায় রাখার! তাই শেয়ালের কাছে মুর্গির হেফাজত রাখার মতো পুরুষের ওপরে বর্তানো হয়েছে নারীর সম্মানরক্ষার দায়িত্ব।

চৌদি আজবে নারীদের জীবন অনধিকারময়। অগণ্য অধিকারহীনতার একটি - মেয়েদের গাড়ি চালাতে পারে না। সেখানকার ধর্মগুরুরা প্রচার করে, নারীরা গাড়ি চালাতে শুরু করলে কুমারীরা বিলীন হয়ে যাবে সেই দেশ থেকে, ফলে বৃদ্ধি পাবে দেহব্যবসা, পর্নোগ্রাফি, সমকামিতা ও বিবাহবিচ্ছেদের হার। 

কিন্তু মানাআল (Manal) নামের এক দুঃসাহসী সৌদি নারী সমস্ত প্রতিবন্ধক উপেক্ষা করে গাড়ি চালিয়েছিলেন। কারাবাসও হয়েছিল তাঁর। এ বছর Oslo Freedom Forum-এ অংশ নিয়ে সাড়ে সতেরো মিনিটের অত্যন্ত মনোগ্রাহী বক্তৃতায় তিনি চিত্রিত করেছেন আরবের নারীদের জীবনযাত্রা, বলেছেন তাঁর অধিকার আদায়ের সংগ্রাম ও প্রতিকূলতার কথা।

শনিবার, ২৬ মে, ২০১২

হ্রস্বরসবাক্যবাণ – ৪২


১. 
আমরা বেশ্যালয়কে খারাপ জেনে বড় হলেও স্বর্গ খুব ভাল জায়গা বলে শিখি! বেশ্যাগমন পাপ হলেও আমাদের শেখানো হয় হুরীগমন পুণ্যের! 
(থাবা বাবা)

২. 
পৃথিবীতে সবচেয়ে অকৃতজ্ঞ গোষ্ঠী হইতেছে বিজ্ঞানী সম্প্রদায় - এরা কোরানের সহায়তায় নানান কিছু আবিস্কার করে কোরানকেই অস্বীকার করে। এদের জন্য মহান আল্লাহফাঁক হাবিয়া দোজখ প্রস্তুত করিয়া রাখিয়াছে। সবাই বলুন আমিন। 
(পূর্ব পুরুষ)

৩. 
দৃষ্টি- বা শ্রুতিবিভ্রমকে সত্য বলে মেনে নেয়াটা মস্তিষ্কবিকৃতির লক্ষণ; আর অন্য কারুর দৃষ্টি- বা শ্রুতিবিভ্রমকে সত্য বলে মেনে নেয়ার নাম ধর্ম।
(সংগৃহীত ও অনূদিত)

ছহীহ কনডম



মুসা নবীর কেরামতি - ০৪



নিচের কার্টুন পাঠিয়েছেন কজমিক ডাস্ট

মুসা নবীর আরও কেরামতি: একদুই, তিন

পবিত্র মানেই হোলি শিট


'পবিত্র' (holy) নামের ধারণাটি কি ধর্মের আবিষ্কার? কী জানি! তবে ধর্মগুলো যে এই ধারণাটিকে সবচেয়ে বেশি ব্যবহার করে, তাতে সন্দেহ নেই: পবিত্র কিতাব, পবিত্র স্থান, পবিত্র ভবন, পবিত্র ব্যক্তি, পবিত্র ব্যক্তির ব্যবহৃত বা ব্যবহার্য পবিত্র পোশাক ও নানাবিধ পবিত্র বস্তু ইত্যাদি ইত্যাদি...

বাস্তবতার বিবেচনায় 'পবিত্র' বলে কিছু থাকার কথা নয়। তবে 'পবিত্র' আখ্যা যদি কোনওকিছুকে দিতেই হয়, তবে কোনও পার্থিব বস্তু বা ব্যক্তির যোগ্যতা নেই সেটা অর্জনের। 

১৯৬০ সালে হলিউডে নির্মিত দুঃসাহসিক ছবি Inherit the Wind ছবি থেকে নেয়া প্রায় তিন মিনিটের একটি সংলাপ। 

আমার বোরখা-ফেটিশ – ৪১




শুক্রবার, ২৫ মে, ২০১২

হা-হা-হাদিস – ৪২

হে ঈমান্দার বান্দাসকল, তোমাদের জন্য অজস্র রসময় কথা গুপ্ত রহিয়াছে হাদিস শরিফে।
- সহীহ আল-ধর্মকারী
যে সকল মুসলিম মনে করে, মাথার উকুন থেকে মুক্তি পেতে হলে মস্তিষ্কমুণ্ডনই যথেষ্ট, তারা প্রকৃত মুসলিম নয়। তারা বেঈমান্দার বেদ্বীন বান্দা। কারণ নবীজি হাদিসে স্পষ্ট করে বলে দিয়েছে, মাথা কেশমুক্ত করে ক্ষান্ত হলেই চলবে না, উকুন থেকে সম্পূর্ণ রূপে পরিত্রাণের জন্য তিনদিন রোজাও রাখতে হবে অথবা ছয়জন ব্যক্তিকে খাওয়াতে হবে অথবা একটা ভেড়া (নাকি দুম্বা?) ছদকা দিতে হবে। 

Narrated Ka'b bin Ujrah:
The Prophet came to me during the period of Al-Hudaibiya, while I was lighting fire underneath a cooking pot and lice were falling down my head. He said, "Do your lice hurt your?" I said, "Yes." He said, "Shave your head and fast for three days or feed six poor persons or slaughter a sheep as a sacrifice:"

ধর্মের নানাবিধ উপকারিতা


পাঠিয়েছেন কজমিক ডাস্ট


ভিডিও লিংকিন পার্ক - ০৪


১.
মোছলমান শরাব পান করবে কেন! তাও আবার ছহীহ ইছলামী দেশ ফাকিস্তানে! চিড়িয়াখানার হাতিকে শান্ত রাখতে তাকে মদ্যপান করানো প্রয়োজন - এই ছুতো দেখিয়ে চিড়িয়াখানার কর্মচারীরা হাতির জন্য বরাদ্দ মদ্য গলাধঃকরণ করতো। 
দৈর্ঘ্য: ১.৩৬ মিনিট

২.
চার্চ ত্যাগকারী এক মহিলা ইন্টারনেটে ব্লগ খুলে তাতে চার্চের ভেতরের খবর ফাঁস করার কারণে চার্চ তাঁর বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দিয়েছে। 
দৈর্ঘ্য: ২.৩৯ মিনিট

৩. 
নবীজিরে নিয়া মশকরা করলে খবরই আছে - এ কথা বলে হুমকি দিচ্ছে জার্মানির মুসলিমেরা। কেউ নবীর সমালোচনা করলে তার কার্টুন আঁকলে তারা নবীর সম্মান রক্ষার্থে সর্বস্ব উৎসর্গ করতে প্রস্তুত। ইসলামের এই ষণ্ডগুলোকে কে বোঝাবে, ইসলামে যা নিষিদ্ধ, তা মুসলিমদের জন্য। অ-মুসলিমরা সেই আইন মানতে বাধ্য নয়।
দৈর্ঘ্য: ১.৪০ মিনিট

৪.
অতি স্বল্পবসনা এক আরবীয় নারী যে ধরনের নাচ নাচলো, তা নিশ্চয়ই হালাল ও ছহীহ, অন্তত সেখানে বোরখা-হিজাবাবৃত বেশ কিছু মহিলা ও শিশুদের উপস্থিতি সে কথাই প্রমাণ করে। কিন্তু মমিনাদের জন্য ইছলামী ড্রেসকোড বিষয়ে এক ইছলামবাজের বক্তব্য শুনে ধন্দে পড়ে গেলাম।
দৈর্ঘ্য: ৩.২৫ মিনিট, ৪.৪৮ মিনিট

৫.
ইউটিউবে খুবই জনপ্রিয় মজাদার গরু-নৃত্য। বর্ণনায় বলা হচ্ছে: surreal bovine choreography. ঈমান্দার হিন্দু ভাইয়েরা আশ্বস্ত থাকতে পারে: No cows were harmed during the making of this video.
দৈর্ঘ্য: ২.১০ মিনিট।

বিজ্ঞান তুচ্ছ, ধর্মই সত্য



ইসলামে কাম ও কামকেলি - ১১


মূল রচনা: আবুল কাশেম (সেক্স এন্ড সেক্সুয়ালিটি ইন ইসলাম)
অনুবাদ: খেলারাম পাঠক

(সতর্কতা: নরনারীর যৌনাচার নিয়ে এই প্রবন্ধ। স্বাভাবিকভাবেই কামসম্পর্কিত নানাবিধ টার্ম ব্যবহার করতে হয়েছে প্রবন্ধে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে ব্যবহৃত ভাষার মধ্যেও তাই অশালীনতার গন্ধ পাওয়া যেতে পারে। কাম সম্পর্কে যাদের শুচিবাই আছে, এই প্রবন্ধ পাঠে আহত হতে পারেন তারা। এই শ্রেনীর পাঠকদের তাই প্রবন্ধটি পাঠ করা থেকে বিরত থাকতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। পূর্ব সতর্কতা সত্বেও যদি কেউ এটি পাঠ করে আহত বোধ করেন, সেজন্যে কোনভাবেই লেখককে দায়ী করা চলবে না।)

পর্ব ০১ > পর্ব ০২ > পর্ব ০৩ > পর্ব ০৪ > পর্ব ০৫ > পর্ব ০৬ > পর্ব ০৭ > পর্ব ০৮ > পর্ব ০৯ > পর্ব ১০

ঋতুমতী মেয়েদের সাথে রতিক্রিয়ার বিধান আছে কি?

বিবি আয়েশার ঋতুকালীন অবস্থায় মহম্মদ (দঃ) তার সঙ্গে কী আচরণ করেছেন, নিচের হাদিসগুলি হতে সে বিবরণ পাওয়া যায়।
সুনান আবু দাউদ, বুক নং - ১, হাদিস নং - ০২৭: 
উম্মুল মোমেনিন আয়েশা হতে বর্ণিত:
উমারাহ ইবনে ঘোরাব বলেন যে তিনি তার খুড়ির নিকট শুনেছেন যে, তিনি (খুড়ি) আয়েশাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন- যদি আমাদের মধ্যে কেউ ঋতুস্রাব অবস্থায় থাকে এবং স্বামী-স্ত্রীর একটার বেশি বিছানা না থাকে, সে অবস্থায় তারা কী করবে? উত্তরে তিনি (আয়েশা) বলেছিলেন, এই অবস্থায় আল্লাহর রাসুল (দঃ) কী করেছেন আমি তোমাকে তা বলছি। আমার ঋতুকালীন এক রাত্রে তিনি আমার ঘরে আসলেন। তিনি নামাজের জায়গায় গেলেন, অর্থাৎ সেই ঘরে নামাজের জন্যে সংরক্ষিত যে জায়গা ছিল সেই জায়গায়। তিনি যখন ফিরে আসেন তখন আমি গভীর ঘুমে আচ্ছন্ন; ঠাণ্ডায় তিনি ব্যথা বোধ করছিলেন। এবং তিনি বললেন, আমার কাছে আস। আমি বললাম, আমার ঋতুস্রাব শুরু হয়েছে। তিনি বললেন, তোমার ঊরুদ্বয় উন্মুক্ত কর। সুতরাং আমি আমার উরুদ্বয় আবরণমুক্ত করলে তিনি তখন তার চিবুক ও বক্ষ তার মাঝে রাখলেন। আমি তার উপর ঝুঁকে বসে রইলাম যে পর্যন্ত না তিনি উষ্ণ হলেন এবং ঘুমিয়ে পড়লেন।
ওপরের কাহিনীটির অনেক ধরনের ব্যাখ্যা সম্ভব। নিরপেক্ষভাবে বলতে গেলে বলতে হয় যে, ঘটনাটি বরং মহম্মদের (দঃ) মহত্বই প্রতিষ্ঠিত করে। কারণ অন্ততপক্ষে তিনি স্ত্রীলোকের ঋতুস্রাবকে কোনো রোগ বলে বিধান দেননি, উপরন্তু ঋতুকালেও আয়েশার সাথে প্রীতি ও ভালবাসাযুক্ত আচরণ করেছেন। প্রাণবন্ত একজন তরুণী আয়েশা, তার ঋতুকালীন অবস্থায় মোহম্মদের (দঃ) এই আচরণ নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবীদার। এস্থলে সহি বুখারি থেকে আরও একটি হাদিস উদ্ধৃত করা হলো যা থেকে প্রমাণিত হয় যে, মহম্মদ (দঃ) তাঁর প্রিয় স্ত্রী আয়েশার সাথে ঋতুকালেও অত্যন্ত প্রীতিময় আচরণ করতেন।
সহি বুখারি, ভলিউম-৩, হাদিস নং-২৪৭:
মোহম্মদ আয়েশাকে তার ঋতুকালেও আলিঙ্গন করতেন।
আয়েশা হতে বর্ণিত: আমার ঋতুকালেও নবী আমাকে আলিঙ্গন করতেন। তিনি যখন ইতিকাফে বসতেন, তখনও তিনি মসজিদ হতে মাথা বাড়িয়ে দিতেন। আমি ঋতুমতী অবস্থায়ই তার মাথা ধুইয়ে দিতাম। 
এখন প্রশ্ন, ঋতুমতী অবস্থায় স্ত্রী কতটুকু পর্যন্ত হালাল? নিচের হাদিসটি হতে এর ইসলামি সমাধান জেনে নিন।
সুনান আবু দাউদ, বুক নং-১, হাদিস নং-০২১২: 
আব্দুল্লাহ ইবনে সা’দ আল আনসারি হতে বর্ণিতঃ আব্দুল্লাহ আল্লাহর রাসুলকে (দঃ) প্রশ্ন করলেন- যখন আমার স্ত্রী হায়েজ অবস্থায়, তার সাথে কতটুকু পর্য্যন্ত বৈধ? তিনি উত্তর দিলেন- তার কোমর বন্ধনীর উপরের অংশ তোমার জন্যে হালাল।
উক্ত বর্ণনাকারীর পূর্ণাঙ্গ বর্ণনা হতে জানা যায় যে, ঋতুকালীন অবস্থায় স্ত্রীর সাথে একসঙ্গে খাওয়া-দাওয়া করাও বৈধ।

(চলবে)

দোয়া বনাম দাওয়াই


পাঠিয়েছেন দিগম্বর পয়গম্বর


বৃহষ্পতিবার, ২৪ মে, ২০১২

নবীজির ইজ্জতের ফালুদা


নবীজি শিশুকামী ছিলো না।

যুক্তি ১. 
অনেক মেয়েই ঋতুবতী হয় ৯ বছর বয়সে। আর আয়েশার তখন বয়স ছিলো ৯, যখন নবীজি তাকে শয্যাসঙ্গী করে। 
অর্থাৎ 
মেয়ে ঋতুবতী হলেই তার সঙ্গে যৌনমিলন করা যায়েজ এবং সেটা শিশুকামিতা নয়।

যুক্তি ২. 
সেই যুগে অনেক ইহুদিও এই বয়সী মেয়েদের বিয়ে করতো। 
অর্থাৎ 
অন্যদের কৃত অপকর্ম নবীজি পুনরাবৃত্তি করলে সেটা আর অপকর্ম থাকে না।

যুক্তি ৩. 
নবীজির প্রথম স্ত্রী তার চেয়ে ২০ বছরের বড়ো ছিলো। 
অর্থাৎ 
স্ত্রী বয়সে বড়ো হলেই যে কোনও পুরুষের শিশুকামী হবার সম্ভাবনা রহিত হয়ে যায়।

যুক্তি ৪. 
আয়েশা নবীকে প্রচণ্ড পছন্দ করতো। 
অর্থাৎ 
৯ বছর বয়সী মেয়ে ৫৪ বছরের স্বামীকে খুব ভালোবাসলেই স্বামীকে শিশুকামী বলা যাবে না।

যুক্তি ৫. 
নবী আয়েশাকে কখনও শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করেনি। 
অর্থাৎ 
অপরিণত বয়স্ক বালিকাকে কোনও রকম নির্যাতন না করে তার সঙ্গে যৌনমিলন ঘটানো পুরুষটিকে শিশুকামী বলা যাবে না।

এসবই হচ্ছে আস্তিকীয় যুক্তিবাহার। সাড়ে পাঁচ মিনিটের ভিডিওতে নবীজির খসে পড়া লুঙ্গি তুলে তার ইজ্জত রক্ষার আপ্রাণ চেষ্টা চালালো এক মমিনা। 

যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০৭


না, উদ্দেশ্যমূলকভাবে যৌনইঙ্গিত এসবে দেয়া হয়নি। তবে তা খুঁজে পাওয়া দুঃসাধ্য নয় একেবারেই।



যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০১ (ঊনিশটি ছবি)
যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০২ (তিনটি ছবি)
যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০৩ (পাঁচটি ছবি)
যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০৪ (চারটি ছবি)
যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০৫ (চারটি ছবি)
যৌনইঙ্গিতবাহী চার্চ সাইন - ০৬ (দু'টি ছবি)

নিঃসীম নূরানী অন্ধকারে - ১৪


লিখেছেন তামান্না ঝুমু

৬৬. 
মুহাম্মদ (সঃ) - এর মানে হচ্ছে মুহাম্মদের উপর আল্লার রহমত ও করুণা বর্ষিত হোক। তার মানে তিনি কি খুবই করুণ অবস্থায় আছেন? "মুহাম্মদ (সঃ)"-কে বাংলায় "মুহাম্মদ (করুণার পাত্র)" বলা যায় না?

৬৭.
কলেমা শাহাদাত: "আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে আল্লাই একমাত্র স্রষ্টা এবং মুহাম্মদ তার প্রেরিত রাসুল।"
এখানে কে সাক্ষ্য দিচ্ছে, কেন, কোথায় দিচ্ছে? আল্লা ও রাসুলকে কি কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে তাদের বিচার করা হচ্ছে? আর এটা তো শেখানো বুলি। কেউ তো নিজে থেকে সাক্ষ্য দিতে যায়নি! কেউ তো তাকে কখনো দেখেও নি! জোরপূর্বক ভুয়া সাক্ষ্য দেয়ানো হচ্ছে কেন? এটা একটা অপরাধ নয় কি?

৬৮.
ধর্মগ্রন্থগুলো যদি স্রষ্টার রচিত হয়, তবে গ্রন্থপ্রাপ্ত ধর্মগুরুদের এতে কৃতিত্ব কোথায়? তারা তো সেগুলো রচনা করেন নি (অন্তত তারা সেটা দাবী করেছেন)! একজনের রচিত বইয়ে আরেকজনের এত নামডাক কেন? 

৬৯.
কিছু কিছু মানুষ মৃত্যুর পরেও হুরী ,মদ আর আঙ্গুর বেদানার লোভে মেঝেতে পাঁচবেলা মাথা ঠুকে মরে।

৭০.
বিশ্ব প্রকৃতির কোনো ঘটন-অঘটনের জন্য ঈশ্বর দায়ী নয়। মানুষ তার উদ্দেশ্যে শুধু শুধু ধন্যবাদ, স্তুতি বা দোষ ছুঁড়ে দেয়। কিছুই তার কাছে পৌঁছায় না। তার কোনো ঠিকানা নেই। কারণ সে নিজেই তো নেই। সে হচ্ছে কিছু মানুষের কল্পনা। 

মগজখেকো বিশ্বাস



শর্ট ফিল্ম: প্যারোট


ধর্মগ্রস্ত পিতামাতার সঙ্গে নাস্তিক সন্তানের দ্বন্দ্ববহুল সম্পর্কের কাহিনী নিয়ে বানানো ২৪ মিনিটের শর্ট ফিল্ম। গত মাসে মেলবোর্নে অনুষ্ঠিত নাস্তিকদের সম্মেলনে প্রথম প্রদর্শিত ও বিপুল প্রশংসিত।

নামাজনামা – ১৫




বুধবার, ২৩ মে, ২০১২

কুফরী কিতাব: Why People Believe Weird Things ও আরও দু'টি গ্রন্থ


১. 
Why People Believe Weird Things: Pseudoscience, Superstition, and Other Confusions of Our Time - Michael Shermer
সম্ভব হলে কিনে পড়ুন।
বাকিদের জন্য ডাউনলোড (৩.৮৫ মেগাবাইট) লিংক:

২. 
The Cambridge Companion to Atheism - Michael Martin
সম্ভব হলে কিনে পড়ুন।
বাকিদের জন্য ডাউনলোড (৬ মেগাবাইট) লিংক:

৩. 
Sam Harris - The End of Faith: Religion, Terror, and the Future of Reason
সম্ভব হলে কিনে পড়ুন।
বাকিদের জন্য ডাউনলোড (১.৬৯ মেগাবাইট) লিংক:
http://www.fileserve.com/file/2XvSeZr
http://rapidshare.com/files/74699023/Sam.Harris.-.The.End.of.Faith.pdf

নিত্য নবীরে স্মরি – ৫৯


পাঠিয়েছেন কজমিক ডাস্ট

(ছবির ওপরে ক্লিক করে পূর্ণাকারে দেখুন)

শরিয়ার স্বরূপ



Muslim

1. Somebody who goes to live in other peoples countries but refuses to integrate with or tolerate their way of life. At the same time they demand we tolerate them and make all the changes to accomodate their stoneage way of life. 
Not all muslims are terrorists, but most terrorists are muslims.

2. A religion well known for their acts of terror on infadels...

অভিধান একেবারেই ভুল বলেনি। ঠিক এই কথাগুলোর প্রতিফলন পাওয়া গেল এক ইসলামবাজের বক্তব্যে। তার কথা থেকে জানুন, শরিয়া আইনে মানবাধিকার বস্তুটি কী, কেন মুসলিমরা অ-মুসলিমদের চেয়ে সর্বাংশে শ্রেয় এবং মুসলিমরা যে দেশেই যাক না কেন, সেখানে তারা বলপূর্বক ইসলাম প্রতিষ্ঠা করবে কেন, কেন মুসলিম পুরুষ ভিন্ন ধর্মের মেয়েকে বিয়ে করতে পারবে, কিন্তু ভিন্ন ধর্মানুসারী পুরুষ মুসলিম নারীকে বিয়ে করার অধিকার পাবে না... উত্তর আসলে একটাই: নবীজি দিয়ে গেছে তেমন নির্দেশনা।

ইসলামের মহান শান্তির বাণী শুনুন।

চুম্বক অংশগুলোর ট্র্যান্সক্রিপ্ট দেয়া হলো। ফলে ভিডিও না দেখলেও একটি ধারণা অন্তত পাওয়া যাবে।

প্রার্থনা মানেই কাজ না করার ছুতো



নবী মোর ...?


সমলিঙ্গের কিছু প্রতিনিধির সঙ্গে ইছলামের পেয়ারে নবীর অ-স্বাভাবিক আচরনের নমুনা পাওয়া যায় হাদিসগুলোয়। আমি কোনও মন্তব্য করবো না; স্লাইড শো দেখে অথবা পিডিএফ ডাউনলোড (৪.২ মেগাবাইট) করে নিয়ে পড়ে যে যার মতো বুঝে নিন। 

মঙ্গলবার, ২২ মে, ২০১২

দু'টি কার্টুন



Dire Straits-এর Money for nothing নামের গানের Money for nothing and chicks for free লাইনটি স্মর্তব্য

মহাপ্লাবনরে ডুবাইসে


নুহ নবীর মহাপ্লাবনরে ডুবাইয়া ছাড়লো নাস্তিকেরা! এই আবালীয় রূপকথাটারে এরা যে আর কতো বিচিত্রভাবে পচাবে! আজ আরেকটা ভিডিও পেলাম। ২০০৯ সালে বানানো। সাড়ে ছয় মিনিটের নিরেট বিনোদন নিশ্চিতভাবে উপভোগ্য।

দুই নম্বরী পয়গম্বরের দুইখান পোস্টার


পাঠিয়েছেন দিগম্বর পয়গম্বর


(ছবির ওপরে ক্লিক করে পূর্ণাকারে দেখুন)

পাবলিকের মুখ আপনি বন্ধ রাখতে পারবেন না, দুলাভাই


অনলাইন ইংরেজি অভিধানগুলোর মধ্যে আরবান ডিকশনারি-র প্রতি বিশেষ পক্ষপাত আছে আমার। কারণ এমন অনেক আধুনিক ও সাম্প্রতিকালীন শব্দ আছে, যেগুলোর অর্থ অন্য কোনও অভিধানে পাওয়া না গেলেও এখানে পাবার সম্ভাবনা অত্যন্ত বেশি। 

নামকরা অভিধানগুলোর সংকলকদেরকে কোনও শব্দ অন্তর্ভুক্ত করার আগে অনেক কিছু বিবেচনা করতে হয়, তারপর অসংখ্য কার্যপ্রণালী পার হয়ে সেই শব্দ স্থান পায় অভিধানে। ব্যাপারটা সময়সাপেক্ষ তো বটেই; আর তাছাড়া খ্যাতনামা অভিধানগুলোর নীতিমালার কারণে অগণ্য প্রচলিত শব্দ অপাঙক্তেয় ও অচ্ছুৎ হিসেবে পরিগণিত হয়ে পড়ে।

আরবান ডিকশনারির সেই সমস্যা নেই। নতুন শব্দ ও শব্দার্থের হালনাগাদ হচ্ছে এখানে নিয়মিত। উইকিপেডিয়ার ধাঁচে এখানেও যে কেউ শব্দ ও শব্দার্থ যোগ করতে পারে, সম্পাদনা করতে পারে। এই অভিধানে অনেক শব্দের অনেক অর্থ কারুর কারুর কাছে অগ্রহণযোগ্য বা আপত্তিকর মনে হতে পারে। তবে তাতে করে কিন্তু শব্দের প্রচলিত অর্থ বদলায় না। যেমন ধরা যাক mcjob শব্দটি। এর অর্থ (a low-paying, low-prestige dead end job that requires few skills and offers very little chance of intracompany advancement) ম্যাকডোনাল্ডসে কর্মরতদের জন্য খুব একটা সম্মানজনক নয়, কিন্তু লোকজনে যদি শব্দটিকে এই অর্থে ব্যবহার করে, সেটা অভিধানে অন্তর্ভুক্ত করাটাই যুক্তিযুক্ত।

এই আরবান ডিকশনারিতে নেহাত কৌতূহলবশে কিছু শব্দের অর্থ খুঁজতে গিয়ে বড়োই বিনোদিত হলাম। নির্বাচিত কিছু উদাহরণ দেয়া যাক বরং।

Quran

1. The world's best-selling brand of toilet paper.
oh great! I gotta take a monster shit, and there's no Quran.

2. A great fire starter!
Jimmy - "I can't start the campfire dad!"
Dad - "Here son, use this Quran!" 

Koran

1. A superior brand of toilet paper, famous for its cleaning capabilities of removing excess fecal matter from the rectum after defacating. It also has many other uses such as wiping vaginal blood, cleaning up after masturbation, and can even be used as kindling for a camp fire.
Make sure you bring enough Koran for your camping trip.

2. An archaic book of nonsense which crazy people use as justification for their murderous or barbaric deeds.
Person 1 : "I feel like doing something crazy tonight, but I need justification"
Person 2 : (Hands person 1 a copy of the Koran) "Here ya go buddy, close your eyes, pick a page and then pick a verse. That imaginary Allah dude will be stoked that you're dumb enough to go to jail for this shit".

3. Its a blue print for hate, terrorism and wars, if its in the hands of terrorists.
Crazy bastards knock down bulidings over this book? what fucking idiots.

4. The "holy book" to all Islamic peoples. If read, one would find that they want to "slice the fingers and necks of the unbeleivers" and force them into "submission" into the Islamic faith. 
A book written by Mohammed (Probably while he was doing drugs) in which if when you die in good faith, you go to heaven to bang 12 year old boys and 12-19 year old virgin girls.

5. A Heavy Book. Too heavy for a paper-weight but makes a great doorstop.
"That large Cockroach did not know what hit it when I slammed it with the Koran."

Islam

1. A religion of peace which teaches that it is proper to eliminate people who question its peacefulness.
Allahu Akbar, Islam is going to take over what's left of the world.

2. Islam - the belief that an illiterate merchant in a cave became the stenographer of a sky fairy, recording the infallible word of the sky fairy's boss, after which time said illiterate merchant rose into the sky on a winged horse. Among other peaceful precepts, this belief will earn you 72 virgins in the sky, provided you strap an explosive device to yourself, and set off said device in a place calculated to kill as many innocent bystanders as possible.
Allah: "Gabriel, deliver the word of Islam to Mohammed." 
Gabriel: "But, Mohammed is illiterate." 
Allah: "Remind him to boot up his voice dictation software."

Muslim

1. Somebody who goes to live in other peoples countries but refuses to integrate with or tolerate their way of life. At the same time they demand we tolerate them and make all the changes to accomodate their stoneage way of life. 
Not all muslims are terrorists, but most terrorists are muslims.

2. A religion well known for their acts of terror on infadels...

Bible

1. An ancient novel full of murder, corruption, homosexuality, bestiality, incest and cruelty. It is often read to children on Sunday.

2. The Bible is probably the best book ever. You can use it as a coaster, hit people with it, look funny and quote it, eat the pages, fire fuel, toilet paper, start a war, control the stoopid people of the world, read it and become president, Hanaukkah present, piss off the Muslims, and turn back the clock.
I used my bible yesterday as a fiber subustitute.

3. #1 Fiction Best Seller

মিথ্যার সাম্রাজ্যে ঘৃণীত সত্য



ইছলামী বিগ্যান: সূর্যাস্ত


কোরান-হাদিস তথা ইসলাম সকল বিগ্যানের উৎস। আজ আমরা জানবো সূর্যাস্ত বিষয়ে ইসলামী বিগ্যানের মতবাদ। কোরানে স্পষ্ট করে লেখা আছে, সূর্য অস্ত যায় কর্দমাক্ত জলাশয়ে। জোকার নায়েক জাতীয় ইসলামবাজেরা অবশ্য ইসলামের পশ্চাদ্দেশ বস্ত্রাবৃত রাখতে গিয়ে এই কথার বিদঘুটে বিশ্লেষণ করে চলে যায় আল্লাহ ও নবীর মতবাদের বিরুদ্ধে। কারণ কোরানে উল্লেখিত আয়াতটি হাদিসে মুহম্মদের বাণী দিয়ে স্পষ্টভাবে প্রত্যায়িত করা আছে। ফলে জোকার নায়েকেরা ইসলামের খসে পড়া লুঙ্গি সামলাতে গিয়ে জেনেশুনেই আল্লাহ ও তার পেয়ারে নবীর বাণী অস্বীকার করার মতো ধৃষ্টতা দেখায়। এরাই কিন্তু প্রকৃত কাফের, মুরতাদ।

সাড়ে চোদ্দ মিনিটের ভিডিওতে ধাপে ধাপে কোরানীয় বিগ্যানের এই অধ্যায়টির বিশ্লেষণ করা হয়েছে। না দেখলে কবিরা গুনাহর নিশ্চয়তা দেয়া রইলো। 

সোমবার, ২১ মে, ২০১২

নির্ধার্মিক মনীষীরা – ৬২



হা-হা-হাদিস – ৪১

হে ঈমান্দার বান্দাসকল, তোমাদের জন্য অজস্র রসময় কথা গুপ্ত রহিয়াছে হাদিস শরিফে।
- সহীহ আল-ধর্মকারী
আমগো পেয়ারে নবীর উপ্রে ওহি নাজিল হইতো ক্যামনে, জানেন? নবীজির ভাষ্য অনুযায়ী, জিব্রাইল আইসা হাজির হইলে কখনও ঘণ্টার মতোন শব্দ হইতো। আবার সে কখনও কখনও মানুষের বেশে নবীর কাছে আইসা তারে ছবক দিতো আর নবী সেইটা মনে রাখতো।

Narrated Aisha:
Al Harith bin Hisham asked the Prophet, "How does the divine inspiration come to you?" He replied, "In all these ways: The Angel sometimes comes to me with a voice which resembles the sound of a ringing bell, and when this state abandons me, I remember what the Angel has said, and this type of Divine Inspiration is the hardest on me; and sometimes the Angel comes to me in the shape of a man and talks to me, and I understand and remember what he says."