১১ ডিসেম্বর, ২০১০

সৌদি বারবারিয়ার ভোগবাদী রাজপরিবার


প্রথম আলোয় ছোট্ট করে ছাপা হয়েছে খবরটি: মদ মাদক নারী নিয়ে মেতে থাকেন সৌদি প্রিন্সরা

সারাংশটি এমন:

সৌদি আরবে মাদক গ্রহণ ও পাচার এবং ব্যভিচারের দায়ে প্রতিবছর অনেক লোককে কঠিন শাস্তি দেওয়া হয়। অনেককে দোররা মারা হয়। অনেকের শিরশ্ছেদ হয়। অথচ খোদ রাজপরিবারের সদস্যরা হরহামেশাই মদ, মাদক ও নারী নিয়ে মেতে থাকেন। ধর্মীয় পুলিশ সেখানে নাক গলাতে পারেন না। উইকিলিকসের ফাঁস করা গোপন নথিতে এমন তথ্য পাওয়া গেছে। 

ইসলামের জন্মদাতা, ধারক-বাহক দেশটির প্রধানতম পরিবারের সদস্যদের এমন অনৈসলামিক আচরণের জনশ্রুতি বরাবরই ছিলো। উইকিলিকস নিশ্চিত করলো সেটি। প্রতিশ্রুত পারলৌকিক হুর ও শরাবন তহুরা নামের মদিরার ওপরে তাদের আস্থা নেই। প্রতিশ্রুতিটি পুরোপুরিই ভুয়া ও অমূলক, তারা তা জানে।   


বিশদ খবর গার্ডিয়ানে (লিংক পাঠিয়েছেন babble)। 

এখন দেখুন কৌতূহলোদ্দীপক ছোট্ট দু'টি ভিডিও।

ইরাকী বেলি-ড্যান্সারের ওপরে সৌদি যুবকের অর্থবর্ষণ। মেয়েটির বুকেও টাকা গুঁজে দেয় সে। ইউটিউবে ভিডিওর বর্ণনায় বলা আছে: The more she praises his tribe, the more she earns!


সৌদি পার্টিতে দুই সৌদি মেয়ের নাচ। আরবিতে লেখা ভিডিওর বর্ণনার গুগল-অনুবাদ: Girls Al Saud, they Ihzn Ttiyazathn।


সময় থাকলে সৌদি বারবারিয়ার আরেকটি অন্ধকার জগৎ সম্পর্কে পড়ুন। চার পৃষ্ঠার দীর্ঘ প্রতিবেদন। তবে পড়ে ফেলা যায় একটানে।

কোন মন্তব্য নেই:

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন