বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০১০

মুখে ধর্ম, মনে পর্নো – ০১


চমৎকারএক পরিসংখ্যান পাওয়া গেল।

আমেরিকার যে-প্রদেশগুলোয় ধর্মবিশ্বাসীদের প্রাধান্য, সেই সব প্রদেশে পর্নোছবির গ্রাহক অন্য প্রদেশগুলোর তুলনায় বেশি। হয়তো ভাবছেন, প্রাপ্তবয়স্ক কেউ পর্নোছবি দেখলে তাতে লজ্জা বা অপরাধের কী আছে? কিছুই নেই। আমিও তা-ই মনে করি। কিন্তু পর্নোবিরোধী চাপাবাজি করে মুখে ফেনা তুলে গোপনে পর্নো দেখার মধ্যে যে-ভণ্ডামি আছে, সেটির প্রতি দৃষ্টিপাত করতে চাই। 

New Scientist-এর এই খবরে কৌতূহলোদ্দীপক কিছু তথ্য আছে।

১. পর্নোছবির সবচেয়ে বড়ো দশটি খদ্দের-প্রদেশের আটটি গত রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে ভোট দিয়েছে ধর্মবাজ রিপাবলিকান দলের জন ম্যাককেইনকে, আর সবচেয়ে ছোট দশ খদ্দের-প্রদেশের ছ'টি ভোট দিয়েছে ওবামাকে।

২. যে সাতাশটি প্রদেশে সমকামী বিবাহ নিষিদ্ধ, সেখানে পর্নো-সাবস্ক্রাইবারের সংখ্যা অন্য প্রদেশগুলোর তুলনায় শতকরা এগারো ভাগ বেশি।

৩. "পরিবার ও বিয়ে প্রসঙ্গে আমি পুরনো মূল্যবোধে বিশ্বাসী" এবং "মানুষের অনৈতিক যৌনাচারের শাস্তি হিসেবে ঈশ্বর এইডস দিয়েছেন" - এই দুই মতবাদ যে-প্রদেশগুলোয় সংখ্যাগরিষ্ঠের সমর্থন পায়, সেই সব প্রদেশেও পর্নো-সাবস্ক্রাইবার বেশি।

ইহা হইতে আমরা কী শিক্ষা পাইলাম?

blog comments powered by Disqus